চুরির অভিযোগে শিশুকে বেঁধে রেখে নির্যাতন

স্টাফ করেসপন্ডেন্ট | বাগেরহাট ইনফো ডটকম

bagerhat-pic-130-09-2016বাগেরহাটের মংলায় লোহার রড় চুরির অভিযোগে এক শিশু শিক্ষার্থীকে রোদের মধ্যে বেঁধে নির্যাতনের অভিযোগ পাওয়া গেছে।

শুক্রবার (৩০ সেপ্টেম্বর) সকালে মংলা পৌরসভার আব্দুল হাই সড়কের এক পুরাতন লোহার সামগ্রী (ভাঙ্গারী) ব্যবসায়ী ও তার কর্মচারী চুরির সন্দেহে শাকিল ব্যাপারী (১০) নামে শিশুটিকে মারপিট করে বেঁধে রাখে।

মংলা থানার উপপরিদর্শক (এসআই) মঞ্জুর ইলাহী বাগেরহাট ইনফো ডটকমকে বলেন, পুরাতন রড ব্যবসায়ী আবুল হোসেন ও তার সহযোগী শুকুর আলী সরদার লোহার রড় চুরির অভিযোগে শুক্রবার সকাল সাড়ে ১০টার দিকে এক শিশুকে মারপিট করে দোকানের সামনে রডের সঙ্গে দড়ি দিয়ে বেঁধে রাখে। খবর পেয়ে পুলিশ দুপুরে শিশুটিকে উদ্ধার করেছে।

শাকিল ব্যাপরী মংলা বালুরমাঠ এলাকার দিনমজুর শামীম ব্যাপারীর ছেলে এবং মংলা পোর্ট সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের দ্বিতীয় শ্রেণীর ছাত্র।

শিশু শালিক জানায়, ‘রাস্তায় দু’টি ছোট রড কুড়িয়ে পেয়ে আমি বিক্রি করতে ওই দোকানে যাই। তারা আমাকে টাকা না দিয়ে চুরি করেছিস বলে মারপিট করে এবং রোদের বেঁধে রাখে।’

এ ঘটনায় সন্ধ্যায় শাকিলের নানী কোহিনুর বেগম বাদী হয়ে আবুল হোসেন ও তার সহযোগী শুকুর আলী সরদারের বিরুদ্ধে শিশু নির্যাতন দমন আইনে মংলা থানায় একটি মামলা করেছেন।

এসআই মঞ্জুর ইলাহী বলেন, শিশু শাকিলের পরিবার ও স্থানীয়দের কাছ থেকে অভিযোগ পেয়ে পুলিশ শুকুর আলী সরদারকে (৩৫) আটক করে। অপর অভিযুক্ত আবুল হোসেনকেও আটকের চেষ্টা চলছে।

শুকুর সরদার মংলার বালুরমাঠ এলাকার কাদের সরদারের ছেলে।

এজি/এসআই/বিআই/৩০ সেপ্টেম্বর, ২০১৬

বাগেরহাট ইনফো নিউজWriter: বাগেরহাট ইনফো নিউজ (1301 Posts)