মোরেলগঞ্জে ৩ দিনব্যাপী বারুণী স্নান শুরু

নিউজ রুম | বাগেরহাট ইনফো ডটকম

বাগেরহাটের মোরেলগঞ্জে শুরু হয়েছে হিন্দুধর্মাবলম্বীদের তিন দিনব্যাপী বারুণী স্নান ও মহামেলা। নিজেকে পাপমুক্ত করা ও পুণ্যতার আশায় স্নানোৎসবে যোগ দিয়েছে ভক্তরা।

শনিবার (৮ এপ্রিল) সূর্যোদয়ের পর থেকেই মোরেলগঞ্জ উপজেলার জিউধরা ইউনিয়নের লক্ষ্মীখালী শ্রী শ্রী গোপাল চাঁদ ঠাকুরের মন্দির প্রাঙ্গণে স্নানোৎসব শুরু হয়।

চৈত্রের মধুকৃষ্ণ ত্রয়োদশী তিথিতে প্রতিবছর লক্ষীখালী গ্রামের প্রয়াত গোপাল সাধুর বাড়িতে এই স্নান অনুষ্ঠিত হয়। এ সময় সনাতন হিন্দুধর্মাবলম্বীরা স্নানের পাশাপাশি পূর্বপুরুষদের আত্মার শান্তি কামনায় পূজা অর্চনা করেন।

স্নান উপলক্ষে প্রতিবারের মতো এবারও আয়োজন করা হয়েছে বারুণী মেলা। মেলা চলবে আগামী সোমবার পর্যন্ত। 

সকাল থেকে দেশের বিভিন্ন স্থান থেকে হাজার হাজার ভক্ত ডঙ্কা, ঢাক, ঢোল, ঝাঁঝ, কাঁশর, চাকি, বাঁশি, শঙ্খ, শিঙ্গা, এক তারা, দোতরাসহ বিভিন্ন বাদ্যযন্ত্র বাজিয়ে মুখে হরিনাম করতে করতে এখানে আসছেন। 

মাতুয়া ভক্তরা জানান, দেহ ও মনকে পরিশুদ্ধ করতে এখানে আসা। পরিবারের সবাই মিলে স্নান এবং পূর্বপুরুষের আত্মার শান্তি কামনায় পূজা অর্চনা করছেন।

আয়োজকরা জানান, শ্রীশ্রী হরিচাঁদ ঠাকুরের ২০৪তম জন্ম স্মরণে বাংলা ১৩২৮ সাল থেকে লক্ষীখালী গ্রামে এ মেলা অনুষ্ঠিত হয়ে আসছে। যা ‘গোপাল সাধুর’ মেলা নামেও পরিচিত।

ভ্রম্মচারী শ্রীশ্রী হরিচাঁদ ঠাকুর বাংলা ১২১৮ সালে বৈশাখী পূণিমায় গোপালগঞ্জের ওড়াকান্দিতে জন্মগ্রহন করেন। ধর্মীয় মতাদর্শে হরিচাঁদ ঠাকুর ওড়কিান্দি থেকে বঙ্গভারত উপমহাদেশের শোসন নিস্পেশন বিরোধী ও গণমানুষের মুক্তির আন্দোলন শুরু করেন। এরই ধারাবাহিকতায় বিভিন্ন অঞ্চলে লাখ লাখ ভক্ত অনুসারী তৈরী হয় তার। যারা ‘মতুয়া সম্প্রদায়’ নামে পরিচিত।

মতুয়া ভক্তরা প্রতি বছর মধুকৃষ্ণা পূর্ণিমার ত্রয়োদশী তিথিতে ওড়াকান্দিতে হরিচাঁদ ঠাকুরের জন্মোৎসব পালন করেন। যা এখন বারুণী স্নান ও মহামেলা নামে পরিচিত পেয়েছে।

প্রায়ত গোপাল সাধুর ২৪ বিঘা জমি নিয়ে বসতবাড়িতে বসবে এ মেলা। মেলা ও স্নান নিয়ন্ত্রনের জন্য পুলিশ, আনছার ভিডিপি ছাড়াও স্থানীয় ৩শ’ স্বেচ্ছাসেবক নিযুক্ত রয়েছে।

গোপাল সাধুর এ লীলা ধামে এ পর্যন্ত ৪ পুরুষ গত হয়েছে। বর্তমান গদিনশীন তরুণ সেবাইত সাগর সাধু ঠাকুর জানান, এ বছরের মেলায় যোগ দিয়েছেন, ভারতবর্ষের মতুয়া মহাসংঘের সংঘাধিপতি ভারতীয় লোকসভার সদস্য মাতাশ্রী মমতা ঠাকুর, ভারত মতুয়া মহাসংঘের সংঘাধিপতি কপিল কৃষ্ণ ঠাকুর ও বাংলাদেশ মতুয়া মহাসংঘের সংঘাধিপতি মতুয়াচার্য শ্রীশ্রী হিমাংশুপতি ঠাকুর।

স্নানোৎসব ও মেলায় আগতদের নিরাপত্তায় আইনশৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনীর পক্ষ থেকে সব ধরনের ব্যবস্থা নেওয়া হয়েছে বলে জানান মোরেলগঞ্জের ওসি মো. রাশেদুল আলম।

এইচ//এসআই/বিআই/৮ এপ্রিল, ২০১৭

বাগেরহাট ইনফো নিউজWriter: বাগেরহাট ইনফো নিউজ (1301 Posts)