ম্যাটস শিক্ষার্থীদের অবরোধে পুলিশি বাধা, হাসপাতালে ৬৮

স্টাফ করেসপন্ডেন্ট | বাগেরহাট ইনফো ডটকম

উচ্চ শিক্ষার সুযোগসহ চার দফা দাবিতে বাগেরহাটে সড়ক অবরোধ করে বিক্ষোভ করেছে ডিপ্লোমা মেডিকেল (ম্যাটস) শিক্ষার্থীরা।

আন্দোলনরত শিক্ষার্থীদের দাবি অবরোধকালে পুলিশের তাদের শান্তিপূর্ণ কর্মসূচিতে লাঠিচার্জ করে অর্ধশতাধিক ম্যাটস শিক্ষার্থী আহত হয়েছেন। তবে পুলিশের দাবি, প্রচণ্ড দাবদাহে শিক্ষার্থীরা অসুস্থ হয়ে পড়েন।

বুধবার (২৬ এপ্রিল) বেলা পৌনে ১১টার দিকে বিক্ষোভ মিছিল নিয়ে শহরের দড়াটানা সেতুর কাছে বাগেরহাট-বরিশাল মহাসড়ক অবরোধ করে বাগেরহাট মেডিকেল ট্রেনিং ইনস্টিটিউটের (ম্যাটস্) শিক্ষার্থীরা।

বঙ্গবন্ধু ডিপ্লোমা মেডিকেল স্টুডেন্ট এসোসিয়েশনের (বিডিএমএসএ) ব্যানারে আন্দোলনরত চার শতাধিক শিক্ষার্থী প্রায় এক ঘণ্টা ওই সড়ক অবরোধ করে রাখে এবং বিক্ষোভ করতে থাকেন। এতে যান চলাচল বন্ধ হয়ে গেলে দীর্ঘ যানজটের সৃষ্টি হয়। এক পর্যায়ে পুলিশ তাদের সড়ক থেকে সরিয়ে দিতে লাঠিচার্জ করে।

এসময় প্রচন্ড গরম ও পুলিশের ধাওয়ায় অসুস্থ হয়ে অন্তত ৬৮ শিক্ষার্থী বাগেরহাট সদর হাসপাতালে ভর্তি হন। তাদের মধ্যে দুই শিক্ষার্থীকে উন্নত চিকিৎসার জন্য খুলনা মেডিকেল কলেজ হাসপাতলে পাঠানো হয়েছে।

এরা হলেন, বাগেরহাট ম্যাটসের দ্বিতীয় বর্ষের শিক্ষার্থী তারা আক্তার এবং প্রথম বর্ষের শিক্ষার্থী হুসাইন মাহমুদ।

বিডিএমএসএ বাগেরহাট শখার সভাপতি গোলাম রব্বানী বলেন, জাতির জনক বঙ্গবন্ধুর পঞ্চবার্ষিকী পরিকল্পনা অনুযায়ী ম্যাটস্ শিক্ষার্থীদের উচ্চ শিক্ষার অধিকার নিশ্চিত করা, মেডিকেল এডুকেশন বোর্ড নামে স্বতন্ত্র বোর্ড গঠন, ইন্টার্ণশিপ ভাতা প্রদানসহ চারদফা বাস্তবায়নের দাবিতে দীর্ঘদিন ধরে আমরা আন্দোলন করে আসছি। এই ধারাবাহিকতায় কেন্দ্রীয় কর্মসূচি অনুযায়ী বুধবার সকালে ম্যাটসের চার শতাধিক শিক্ষার্থী বিক্ষোভ মিছিল নিয়ে বাগেরহাট-বরিশাল মহাসড়ক অবরোধ করি।

আমরা সেখানে শান্তিপূর্ণভাবে কর্মসূচি পালন করছিলাম। কিন্তু পুলিশ সড়ক থেকে সরাতে আমাদের উপর চড়াও হয়ে লাঠিচার্জ করে ছত্রভঙ্গ করে দেয়। এতে অন্তত ৮০ জন শিক্ষার্থী কমবেশি আহত হয়েছেন।

বাগেরহাট সদর হাসপাতালের চিকিৎসক মশিউর রহমান বলেন, দুপুর ৩টা পর্যন্ত ম্যাটসের ৬৮ জন ছাত্র-ছাত্রী হাসপাতালে ভর্তি হয়েছেন। তারা পুলিশের লাঠিচার্জে আহত হবার কথা বলছে।

‘অসুস্থ শিক্ষার্থীদের কয়েক জনের শরীরে আঘাতের চিহ্ন রয়েছে; অনেকেই প্রচন্ড রোদ ও গরমের কারণেও অসুস্থ হয়েছেন।’

হাসপাতালে ভর্তির পর দুই শিক্ষার্থীকে উন্নত চিকিৎসার জন্য খুলনা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে পাঠানো হয়েছে।

এদিকে শিক্ষার্থীদের অবরোধে লাঠিচার্জের অভিযোগ অস্বীকার করে বাগেরহাটের পুলিশ সুপার পংকজ চন্দ্র রায় বলেন, ম্যাটসের শিক্ষার্থীরা চার দফা দাবিতে যে আন্দোলন করছে তা বাস্তবায়নের দায়িত্ব সরকারের। আমরা বিষয়টি শিক্ষার্থীদের বুঝিয়ে সড়কে যান চলাচল সাভাবিক করতে তাদের রাস্তা থেকে সরিয়ে দেই।

অবরোধের কারণে খুলনা-বরিশাল মহাসড়কে যানজটের সৃষ্টি হয়। এতে সাধারণ মানুষ ভোগান্তিতে পড়ে। প্রচন্ড রোদ ও গরমে শিক্ষার্থীরাও অসুস্থ হয়ে পড়ছিল।

এজি/এইচ//এসআই/বিআই/২৬ এপ্রিল, ২০১৭

বাগেরহাট ইনফো নিউজWriter: বাগেরহাট ইনফো নিউজ (1301 Posts)