ভৈরব তীরে ফের দখলের চেষ্টা: তিন জনের জেল

স্টাফ করেসপন্ডেন্ট | বাগেরহাট ইনফো ডটকম

বাগেরহাটে ভৈরব নদের তীর দখল ও স্থাপনা নির্মাণের অভিযোগে তিন জনকে বিভিন্ন মেয়াদে কারাদণ্ড দিয়েছেন ভ্রাম্যমাণ আদলত।

বুধবার (২৬ এপ্রিল) বিকালে শহরের কাঁচা বাজার সংলগ্ন ভৈরব তীরে অভিযান চালিয়ে বাগেরহাট জেলা প্রশাসনের সহকারী কমিশনার ও নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট নাজিম উদ্দীন এ দণ্ড দেন।

দণ্ডপ্রাপ্তরা হলেন- বাগেরহাট শহরের বাসাবাটি এলাকার ওসমান সরদার (৬০), সদর উপজেলার নোনাডাঙ্গা গ্রামের আব্দুল আওয়াল (৬২) এবং নাগেরবাজার এলকার সবজি ব্যবসায়ী জামাল আকন (৪০)।

ভ্রাম্যমাণ আদালতের বিচারক নাজিম উদ্দীন বলেন, বাগেরহাট শহরের পাশ দিয়ে বয়ে যাওয়া ভৈরব নদের তীর দীর্ঘদিন ধরে অবৈধ দখলে ছিলো। সাম্প্রতি জেলা প্রশাসন দড়াটানা সেতু থেকে মুনিগঞ্জ পর্যন্ত নদের আড়াই কিলোমিটার তীর জুড়ে পাঁচশতাধিক অবৈধ স্থাপনা উচ্ছেদ করে। সেই সঙ্গে এখন থেকে ভৈরব নদ দূষণ ও দখল রাখতে নিয়মিত মনিটরিং-এর সিদ্ধান্ত হয়।

এর অংশ হিসাবে বিকালে শহরের কাঁচা বাজার সংলগ্ন ভৈরব তীরে গেলে স্থাপনা নির্মাণকালে ওসমান সরদার নামে এক ব্যক্তিকে আটক করা হয়। তিনি ভাড়া দেওয়ার জন্য নদের তীর দখল করে দোকান ঘর নির্মাণ করছিলো। ভ্রাম্যমাণ আদালতে তাকে ১৫ দিনের বিনাশ্রম কারাদণ্ড দেওয়া হয়েছে।

একই স্থান থেকে আটক সবজি ব্যবসায়ী জামাল আকন (৪০) এক দিনের এবং ভৈরব তীরে সড়ক দখল করে গাছ রাখায় করাতকল মালিক আব্দুল আওয়ালকে ৫দিনের বিনাশ্রম কারাদণ্ড দেওয়া হয়েছে।

এদিকে একই আদালত শহরের সুপারিপট্টি ঘাটে খেয়া পারাপারের একটি ট্রলারে অতিরিক্ত যাত্রী বোঝাই করে চলাচলের দায়ে মাঝিকে এক মাসের কারাদণ্ড দিয়েছেন। দণ্ডপ্রাপ্ত মাঝি ইব্রাহিম জমাদ্দার (২৬) বাগেরহাট সদর উপজেলার চরগ্রাম এলাকার আদম আলী জমাদ্দারের ছেলে।

নির্বাহী হাকিম নাজিম উদ্দীন বলেন, ভৈরব নদের সুপারিপট্টি ঘাটে ট্রলারে অতিরিক্ত যাত্রী বোঝাই করে পারাপার করছিল ওই মাঝি। ইতিপূর্বে কয়েকবার নিষেধ ও দুর্ঘটনার ঝুঁকি থাকা স্বত্বেও ট্রলারে অতিরিক্ত যাত্রী পরিবহনের দায়ে মাঝিকে এক মাসের বিনাশ্রম কারাদণ্ড দেওয়া হয়েছে।

প্রসঙ্গত, গত মাসে জেলার মোরেলগঞ্জ উপজেলার পানগুছি নদীতে খেয়াপারের একটি ট্রলারডুবে অন্তত ১৯ জন নিহত হন।

এইচ//এসআই/বিআই/২৬ এপ্রিল, ২০১৭

বাগেরহাট ইনফো নিউজWriter: বাগেরহাট ইনফো নিউজ (1304 Posts)