সনাক বাগেরহাটের উদ্যোগে ২০১৩ সালের এসএসসি পরীক্ষায় জিপিএ- ৫ প্রাপ্ত কৃতি শিক্ষার্থীদের সংবর্ধনা

ট্রান্সপারেন্সি ইন্টারন্যাশনাল বাংলাদেশ (টিআইবি)’র পৃষ্ঠপোষকতায় গঠিত সচেতন নাগরিক কমিটি (সনাক), বাগেরহাটের উদ্যোগে ২০১৩ সালের এসএসসি পরীক্ষায় জিপিএ- ৫ প্রাপ্ত কৃতি শিক্ষার্থীদের সংবর্ধনা প্রদান করা হয়েছে।

GPA- 5- 1 (02.07.2013)মঙ্গলবার সকাল ১১টায় স্থানীয় জেলা পরিষদ অডিটরিয়ামে সচেতন নাগরিক কমিটি (সনাক), বাগেরহাট’র সভাপতি প্রফেসর চৌধুরী আব্দুর রবের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি হিসাবে উপস্থিত ছিলেন যথাক্রমে বাগেরহাট সরকারি পিসি কলেজের অধ্যক্ষ প্রফেসর সুকণ্ঠ কুমার মন্ডল এবং বিশেষ অতিথি ছিলেন বিশিষ্ট শিক্ষাবিদ ও সুশাসনের জন্য নাগরিক (সুজন), বাগেরহাট’র সভাপতি প্রফেসর মোজাফ্ফর হোসেন।

অনুষ্ঠানে স্বাগত বক্তব্য রাখেন সনাক, বাগেরহাটের শিক্ষা বিষয়ক উপ-কমিটির সভাপতি প্রফেসর এবিএম. মোশাররফ হুসাইন। উপস্থিত সকলকে দুর্নীতিবিরোধী শপথ বাক্য পাঠ করান সনাক সভাপতি প্রফেসর চৌধুরী আব্দুর রব।

অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তব্যে প্রফেসর সুকণ্ঠ কুমার মন্ডল বলেন, ‘তোমরা জীবনের প্রথম পাবলিক পরীক্ষায় ভাল রেজাল্ট করেছ বলে বসে থাকলে চলবে না, সামনে আরো অনেক পরীক্ষা আছে- সেগুলোকে ভাল করতে হবে’। বিশেষ অতিথির বক্তব্যে প্রফেসর মোজাফ্ফর হোসেন কৃতি শিক্ষার্থীদের উদ্দেশ্যে বলেন, ‘দুনীতি বন্ধ করতে হলে রাজনৈতিক সদিচ্ছা থাকা প্রয়োজন এবং তার পাশাপাশি তোমাদের সামাজিক আন্দোলন গড়ে তুলতে হবে। আর তোমরাই সেটা একদিন পারবে বলে আমার বিশ্বাস’।

কৃতি শিক্ষার্থী সংবর্ধনার পূর্বে সকাল ১০টায় উক্ত স্থানে ‘যুক্তির আলোকে খুঁজি দুর্নীতি প্রতিরোধের পথ’ শীর্ষক ৫ম আন্ত:স্কুল বিতর্ক প্রতিযোগিতা, ২০১৩ এর ফাইনাল। ফাইনালে বিতর্কের বিষয় ছিল ‘অস্থির রাজনৈতিক পরিবেশই বাংলাদেশের দুর্নীতির প্রধান কারণ’।

এতে পক্ষ দল ছিল বাগেরহাট সরকারি বালক উচ্চ বিদ্যালয় (ক) এবং বিপক্ষ দল ছিল বাগেরহাট সরকারি বালিকা উচ্চ বিদ্যালয় (খ)। প্রতিযোগিতায় চ্যাম্পিয়ন ও রানারআপ হয় যথাক্রমে বাগেরহাট সরকারি বালক উচ্চ বিদ্যালয় (ক) দল এবং বাগেরহাট সরকারি বালিকা উচ্চ বিদ্যালয় (খ) দল।

প্রতিযোগিতা শেষে ২০১৩ সালের এসএসসি পরীক্ষায় জিপিএ- ৫ প্রাপ্ত কৃতি শিক্ষার্থীদের মেডেল, সম্মাননাপত্র ও ফুল দিয়ে শুভেচ্ছা জানানো হয়। উল্লেখ্য যে, এবারের এসএসসি পরীক্ষায় বাগেরহাট সদর উপজেলা কেন্দ্র হতে জিপিএ- ৫ (সাধারণ) প্রাপ্ত মোট ১৪৬ জন শিক্ষার্থীকে সংবর্ধনা প্রদান করা হয়। সংবর্ধনা শেষে বিতর্ক প্রতিযোগিতায় চ্যাম্পিয়ন ও রানার আপ দল এবং দলের সদস্যদের পুরস্কৃত করা হয়।

অনুষ্ঠানে অন্যানের মধ্যে বক্তব্য রাখেন সনাক সহ সভাপতি যথাক্রমে অধ্যক্ষ সইফ উদ্দিন আহ্মদ ও ফরিদা রহমান, কৃতি শিক্ষার্থীদের পক্ষ থেকে এ. বি. এম. আরিফ ও জেরিণ আফরোজ, শিক্ষকদের পক্ষ থেকে শেখ মুজিবুর রহমান ও মুকুন্দ কুমার দাস এবং অভিভাবকদের পক্ষ থেকে এজি গোলাম মোস্তফা প্রমুখ। অনুষ্ঠানে কৃতি শিক্ষার্থীদের মা-বাবা ও অভিভাবকদের পাশাপাশি শিক্ষানুরাগী, শিক্ষক, ছাত্র, আইনজীবী, ব্যবসায়ীসহ বাগেরহাটের সুশীল সমাজের প্রতিনিধিবৃন্দ উপস্থিত ছিলেন।

০২ জুলাই ২০১৩ :: বাগেরহাট ইনফো ডটকম।।

AnisWriter: Anis (5 Posts)

Area Manager, Transparency International Bangladesh (TIB) 43, PC College Road, Bagerhat.