ঈদ আনন্দে এক সাথে

Adarsha-Bidyalaya-Eid-event'13সেই আনান্দ, সেই উল্লাসে!  বন্ধুদের সেই আড্ডায় কে না চায় ফিরতে!
তবু নাগরিক জীবনের কর্মব্যস্ততা আর কোলা হলে হয়তো অনেকেরই আর সময় হয়ে ওঠেনা, বন্ধুদের সেই আড্ডায়। কিন্তু মন তো সবারই এক হতে চাই সেই পুরান বারান্দায়।
সারা বছর কর্মব্যস্ততা, পড়াশুনা বা অনন্য নানা ব্যাস্তয় সময় কাটালেও ঈদ বা পূজার মত আয়জন গুলোতে সবই চায় এক হয়ে এক সাথে ছেলে বেলার সেই মুখরিত উল্লশ আয়জনে এক হতে।
হ্য, তেমনি এক আয়জনের কথই বলছি। বাগেরহাট শহরের অন্যতম বিদ্যাপিঠ আদর্শ মাধ্যমিক বিদ্যালয়ের প্রাক্তন শিক্ষার্থীদের অনেকেই এক করেছিল এই ব্যতিক্রমী আয়জনে। স্কুলের সব প্রাক্তন ছাত্র-ছাত্রীদের জন্য এ আয়জন হয়ে ওঠে ব্যতিক্রমী এক উৎসব।
আর এআয়জনে সকলকে আমন্ত্রনেও ছিল একটু ব্যতিক্রম। বলা যায় কেই কউকে না ডেকেই সবাই এক হবার মতই ছিল এ আড্ডা আয়জন। সামাজিম যোগাযোগ মাধ্যম ফেসবুকে ব্যবহার করে আয়জিত এই স্কুল আড্ডায় যে সবই ফিরেছিল তার শৈশবে। কথায় কথায় সময় পার, বিকাল ৫টার আয়জন চলে সন্ধা পেরিয়েও। নিদৃষ্ট কোন ব্যাচ বা নিদৃষ্ট শিক্ষার্ষের শিক্ষর্থীরা না ছিল স্কুলের নবীন প্রবীণ সবার আড্ডা।
কথায় কথায় জমে ওঠা সে আড্ডায় বার বার উঠে আছে স্কুলের প্রতিষ্ঠাতা স্রদ্ধেয় আনোয়া স্যারের কথা। উঠে আসে সে দিনের স্যারের হাতে গড়া আদর্শ শিশু বিদ্যালয়ের কথা।
স্কুল আঙিনায় আবরও বন্ধুদের সাথে পেয়ে যেমন ছিল উল্লাশ, ছিল স্মৃতি কাতরতা। তই তো প্রয়াত পিটি স্যারের কথা বলেতেই কন্ঠ ভিজে আসছিল কারো আবার কারো স্মৃতিতে থাকা সেই গোলপাতা বা টিন সেডের ছোট শিশু বিদ্যালয়ে কথা।
তবে আক্ষেপও ছিল কারো কারো কন্ঠে। আক্ষেপ ছিল প্রিয় বিদ্যালয় নিয়ে, ছিল সব বন্ধুদের কছে না পেয়ে।
কারো কন্ঠে ছিল শিল্পি ম্যাডামের কাছে শোনা “বিদ্যালয়, মোদের বিদ্যালয়, এখানে সভ্যতারই …..” গান আবার স্মৃতির হাত ধরে ভেষে আসছিল প্রতিদিন সকালে এসেম্বিলিতে(assembly) বলা সে শপত বাক্য। বাদ যাননি স্কুলের প্রিয় শিক্ষকরাও। আড্ডার ফাঁকে তাদের অংগ্রহন সবার জন্য ছিল বাড়তি প্রাপ্তি। সব মিলে প্রানবন্ত এ আয়জন।
Eid Special Adda 2012জান যায় ফেসবুকে থাকা আদর্শ বিদ্যালয়, বাগেরহাট (Adarsha Bidyalaya, Bagerhat) নামে গ্রুপের মাধ্যমে গত কয়েক বছর থেকেই আয়জন করা হচ্ছে এমন ইভেন্টের। গ্রুপে থাকা স্কুরের প্রাক্তন বন্ধুদের জন্য ইভেন্ট ক্রিয়েট করে আমন্ত্রন জানান হয় সব বন্ধুদের। আর সে আমন্ত্রনে সাড়া দিয়ে প্রতি ঈদের পর দিন (ঈদের ২য় দিন) সবই জড় হয় নিজেদের স্কুলে।
এ বছর গ্রুপে ‘Eid Special Adda @ School Campus’ শিরনামে ইভেন্টটি(Event) ক্রিয়েট করেন স্কুলের প্রাক্তন ছাত্র সাকিব আহম্মেদ অনয়। তিনি জানান, গত কয়েক বছরের ধারা বাহিকতায় আমাদের এ আয়াজন এখন এক মিলন মেলা। ঈদ বা পূজার মতন এমন দীর্ঘ্য ছুটিতে দেশের বিভিন্ন প্রান্তে ছড়িয়ে থাকা স্কুলের পুরন শিক্ষার্থীদের বেশির ভাগই ফিরে আসেন বাগেরহাটে। আর এমন উৎসবকে সামনে রেখে গ্রুপে যে কেউই এমন ইভেন্ট ক্রিয়েট করে সবইকে আমন্ত্রন জানান। আর এ ভাবেই এক হই আমরা, জমে ওঠে আমাদের আড্ডা।
তবে তার দবি উপস্থিত হন প্রাক্তন দের অতি ক্ষুদ্র একটটি অংশ। সবাই এক হলেই স্বার্থক হবে তাদের এ উদ্দোগ।
আড্ডায় উপস্থিতদের মধ্যে জ্যেষ্ঠ এক প্রাক্তন শিক্ষার্থী জানান, প্রতি বছরের ধারাবাহিকতায় এবারের মতন আগামীতেও বিশেষ করে প্রতি ঈদের দ্বিতীয় দিন প্রাক্তনদের নিয়ে তাদের এমন আয়জনা অব্যহত থাকবে।

ইনজামামুল হক,
বাগেরহাট ইনফো ডটকম।।

Inzamamul HaqueWriter: Inzamamul Haque (160 Posts)