সুন্দরবনে লাগা আগুন নিয়ন্ত্রনের দাবী, পুড়ে গেছে বনভূমি

পূর্ব সুন্দরবনের চাঁদপাই রেঞ্জের ঘুলিশাখালী ও আমুরবুনিয়া ফরেষ্ট ক্যাম্পের (টহল ফাঁড়ি) মাঝামাঝি এলাকায় লাগা আগুন নিয়ন্ত্রনে আছে বলে দাবী বনবিভাগ। এদিকে আগুন যাতে আর ছড়াতে না পারে এজন্য সাড়ে তিন একর এলাকা জুড়ে ফায়ার লাইন কাটাছে ফায়ার সার্ভিস।

Fair-in-Sundorbomবুধবার সন্ধার কিছু আগে লাগা এ আগুনে এক একর বনভূমি পুড়ে গেছে বল বন বিভাগ স্বিকার করেছে। তবে অপর একটি সূত্র জানানায় আগুনে বনের ওই এলাকায় তিনি একরের বেশি বনভূমি পুড়ে গেছে।

আগুন নিয়ন্ত্রনে রাত থেকে সুন্দরবনের ওই এলাকায় কাছ করছে বন বিভাগ ও ফায়ার সার্ভিস কর্মীরা।

ফায়ার সার্ভিস মোড়েলগঞ্জ ষ্টেশনের ষ্টেশন অফিসার আরিফুল হক বাগেরহাট ইনফো ডটকমকে জানান, রাত থেকে তারা আগুন নিয়ন্ত্রনে কাছ করছে। বর্তমানে আগুন মোটামুটি তাদের নিয়ন্ত্রনে।

তিনি বলেন, ফায়ার সার্ভিসের সদস্যরা আগুন নিয়ন্ত্রনে ফায়ার লাইন কাটাছে। সামান্য বাতাস হলেই আগুন আশপাশে ছড়িয়ে পড়ার আসঙ্কায় তারা ফায়ার লাইন কাটাছে।

এছাড়া ফারর সার্ভিস এর মাধ্যমে সেখানে বর্তমানে (সকাল ৯টা ৪২মিনিটে) পানি দিয়ে ভিজিয়ে দেওয়া হচ্ছে বলে বাগেরহাট ইনফোকে জানান ধানসাগর ফরেস্ট স্টেশনের কর্মকর্তা আব্দুল বারিক। তবে কিছু কিছু এলায় ধোয়া দেখা যাবার কথা স্বিকার করেছেন তিনি।

এর আগে বুধবার সন্ধার কিছু আগে বনজীবীরা সুন্দরবনের গাছ-পালায় দাউ-দাউ করে আগুন জ্বলতে দেখে বন বিভাগকে খবর দেয়। খবর পেয়ে মোড়েলগঞ্জ ও শরণখোলা ফায়ার সার্ভিস  সদস্যদের নিয়ে চাঁদপাই রেঞ্জের রেঞ্জ কর্মকর্তা আবুল কালাম আজাদ ঘটনাস্থলে ছুটে যান।

আগ্নীকান্ডের কারণ সম্পার্কে মোরেলগঞ্জ ফায়ার সার্ভিসের ষ্টেশন অফিসার আরিফুল হক জানান, কোন বনজীবী ফেলে আসা আগুন, বিড়ি- সিগারেটের আগুন অথবা মৌয়ালদের অসাবধানতার কারণে এই আগুন লাগতে পারে বলে ধারনা করা হচ্ছে।

তবে পূর্ব সুন্দরবন বিভাগের বিভাগীয় কর্মকর্তা (ডিএফও) আমীর হোসাইন চৌধুরী সুন্দরবনের অগ্নিকান্ড সম্পূর্ণ নিয়ন্ত্রনে আছে দাবী করে বাগেরহাট ইনফোকে জানান, বুধবার রাত ১০টার পর পরই আগুন নিয়ন্ত্রনে আসে। আগুনে ওই এলাকায় এক একর বনভূমি পুড়ি গেছে বলেও জানান তিনি।

খুলনা বিশ্ববিদ্যালয়ের সুন্দরবন ও উড টেকনলজি বিভাগের অধ্যাপক ড. মাহামুদ হোসেন জানান, যে কোন ধরনের আগুন সুন্দরবনের জন্য ক্ষতির কারণ। বিশেষ করে শুস্ক মৌসুমে বনে আগুন লাগলে দ্রুত ওই আগুন ছড়িয়ে পড়ার আশংকা থেকে যায়।

বনের যে এলাকা আগুনে পুড়ে গেছে ওই এলাকায় জোয়ার-ভাটা না থাকলে নতুন করে ম্যানগ্রোভ জম্মাতে সময় লেগে যাবে। বন বিভাগকে যথেষ্ট সতর্কতার সঙ্গে আগুন নেভানোর পরামর্শ দেন ড. মাহামুদ হোসেন।

২২ মে ২০১৪ :: সিনিয়র স্টাফ করেসপন্ডেন্ট,
বাগেরহাট ইনফো ডটকম।।
এসআই হকনিউজরুম এডিটর/বিআই
ইনফো ডেস্কWriter: ইনফো ডেস্ক (1855 Posts)