বাগেরহাটে ৩ দিনব্যাপী চলচ্চিত্র উৎসব

BFS-2014বাগেরহাটে ফিল্ম সোসাইটির এক যুগপূর্তি উপলক্ষে বাগেরহাটে শুরু হয়েছে ৩ দিন ব্যাপী চলচ্চিত্র উৎসব।

শুক্রবার সন্ধ্যায় সোসাইটির আয়োজনে শহরের সাংস্কৃতিক ফাউন্ডেশনের এসিলাহা মিলনায়তনে ৩ দিনব্যাপী এ চলচ্চিত্র উৎসবের উদ্বোধন করা হয়।

অনুষ্ঠানের প্রধান অতিধি ছিলেন বাগেরহাট-২ আসনের সংসদ সদস্য অ্যাডভোকেট মীর শওকাত আলী বাদশা। বাগেরহাট ফিল্ম সোসাইটির সভাপতি জাকির হোসেনের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত উদ্বোধনী আলোচনা সভায় অন্যান্যের মধ্যে বক্তব্য দেন শিক্ষাবিদ অধ্যাপক মোজাফফর হোসেন, নাট্যব্যক্তিত্ব অভিনেতা অধ্যাপক কমল কুমার ঘোষ প্রমূখ।

আগামী ১২ অক্টোবর উৎসব শেষ হবে।

অনুষ্ঠানে বাগেরহাটের স্থির চিত্রগ্রাহক দেবাশিষ সোম ও রফিকুল ইসলাম রুস্তুমকে এবং অভিনয়ে মীর নওফেল আশরাফী জিসানকে সম্মাননা দেয়া হয়।

উদ্বোধনী দিনে চলচ্চিত্রকার মোস্তফা সরোয়ার ফারুকীর টেলিভিশন চলচ্চিত্রটি দর্শকদের জন্য প্রদর্শন করা হয়। শনিবার (১১ অক্টোবর) সকালে শিশুদের জন্য শিশুতোষ ইরাণী চলচ্চিত্র কালার অব প্যারাডাইস সন্ধ্যায় বাংলা চলচ্চিত্র শব্দ এবং ১২ অক্টোবর সকালে শিশুতোষ এনিমেশন চলচ্চিত্র রিও-২ ও সন্ধ্যায় বাংলা চলচ্চিত্র রূপকথা নয় প্রদর্শিত হবে।

সংসদ সদস্য মীর শওকাত আলী বাদশা বলেন, অসুস্থধারার চলচ্চিত্রের কারনে মানুষ এখন সিনেমা হল থেকে মূখ ফিরিয়ে নিয়েছে। গত ১২ বছর ধরে তারা দেশি বিদেশি চলচ্চিত্র বাগেরহাটের চলচ্চিত্রপ্রেমীদের উপহার দিয়ে আসছে। তাই সুস্থধারার চলচ্চিত্রকে টিকিয়ে রাখতে বাগেরহাটের এই তরুণ উদ্যোক্তাদের উদ্যোগ অব্যাহত রাখার আহ্বান জানান তিনি।

Bagerhat-Pic-01(11-10-2014)শিক্ষাবিদ মোজাফফর হোসেন বলেন, উত্তম কুমার সূচিতা সেনদের মতো অভিনেতাদের ছবি এখন আর আমরা সিনেমা হলে দেখতে পাইনা। যার কারনে চলচ্চিত্রপ্রেমী দর্শকরা আজ আর সিনেমা হলে যায়না। তাই সুস্থধারার চলচ্চিত্রকে টিকিয়ে রাখতে গত একযুগ ধরে বাগেরহাটের একদল তরুণ কাজ করে যাচ্ছে। তাই তাদের এই উদ্যোগ অব্যাহত থাকবে এটাই তিনি আশা করেন। তাদের এই উদ্যোগ অব্যাহত থাকলে সিনেমা হলে ভাল সিনেমা দেখতে মানুষ আবার হলমূখি হবে এমটাই আশা করেন তিনি।

বাগেরহাট ফিল্ম সোসাইটির সভাপতি জাকির হোসেন বলেন, ২০০২ সালে আমরা কয়েকজন মিলে ফিল্ম সোসাইটি নামে একটি সংগঠন গড়ে তুলি। হাঁটি হাঁটি পা পা করে সেটি একযুগ পার করেছে। প্রতি বছরই আমাদের এই সংগঠন চলচ্চিত্র উৎসব করে আসছে। সুস্থধারার চলচ্চিত্রকে এগিয়ে নিতে আমরা আছি এবং থাকবো। চলচ্চিত্রপ্রেমী দর্শকদের আনন্দ দিতে সব উৎসবেই আমারা দেশি বিদেশি চলচ্চিত্র প্রদর্শণ করে থাকি। এবারও তার ব্যতিক্রম হয়নি। দর্শকদের সুস্থধারার চলচ্চিত্র উপহার দিতে আমাদের প্রয়াস অব্যাহত থাকবে।

নাট্যব্যক্তিত্ব অভিনেতা অধ্যাপক কমল কুমার ঘোষ বলেন, সুস্থধারার চলচ্চিত্রকে টিকিয়ে রাখতে বাগেরহাটের গুটি কয়েক তরুণ ২০০২ সালের ১২ সেপ্টেম্বর বাগেরহাট ফিল্ম সোসাইটি নামে একটি সংগঠন গড়ে তোলে। সেই থেকে সেটি হাঁটি হাঁটি পা পা করে তা এক যুগ পার করেছে। সুস্থধারার চলচ্চিত্রের যখন চরম দুর্দশা চলছে তখন তাদের এই ধরনের উদ্যোগ নি:সন্দেহে প্রশংসার দাবী রাখে।

সিনেমা দেখতে আসা দর্শক আসমা আজাদ ও তানিয়া খাতুন বলেন, বর্তমানে সিনেমা হলে গিয়ে পরিবার নিয়ে সিনেমা দেখার পরিবেশ নেই। প্রতি বছর ফিল্ম সোসাইটির উদ্যোগে যে চলচ্চিত্র উৎসবের আয়োজন করা হয় তাতে আমরা আমাদের পরিবার নিয়ে সিনেমা দেখতে আসি।

তাই সংগঠনটিকে সপ্তাহে অন্তত একদিন এই ধরনের সিনেমা দেখানোর আয়োজন করার দাবি জানান তারা।

১১ অক্টোবর ২০১৪ :: অলীপ ঘটক, স্পেশাল করেসপন্ডেন্ট,
বাগেরহাট ইনফো ডটকম।।
এজি/আই হক-এনআরএডিটর/বিআই
অলীপ ঘটকWriter: অলীপ ঘটক (33 Posts)