ভারতীয় নৌবাহিনীর বিরুদ্ধে বাংলাদেশী জেলে অপহরণের অভিযোগ

Fishing-in-bayOfBangoleবঙ্গোপসাগরে বাংলাদেশ সমুদ্রসীমায় অবৈধভাবে অনুপ্রবেশ করে ভারতীয় নৌ-বাহিনী সদস্যরা সুন্দরবন উপকূল থেকে একটি মাছ ধরার ট্রলারসহ ১৪ বাংলাদেশি জেলেকে অপহরণ করেছে বলে অভিযোগ পওয়া গেছে।

শনিবার সকালে ‘এফবি রহিমা’ নামের একটি ট্রলারসহ ওই জেলেদের ধরে নিয়ে যায় ভারতীয় নৌ-বাহিনী। ধরে নিয়ে যাওয়া বাংলাদেশি এসব জেলেদের বাড়ি বাগেরহাট জেলা শরনখোলা উপজেলার বিভিন্ন গ্রামে।

সোমবার ‘এফবি রহিমা’ ট্রলারের মালিক ও জেলেদের স্বজনেরা অপহরণের তথ্য নিশ্চিত করেছেন।

এফবি রহিমা ফিশিং ট্রলারের মালিক হাতেম আলী মোল্লার ভাতিজা জিয়াউদ্দিন জানান, বাগেরহাটের শরণখোলা উপজেলার খোড়কাটা গ্রামের তার চাচা হাতেম আলী মোল্লা ও চাচাতো ভাই কামাল মোল্লাসহ ১৪ জন জেলে ১৬ অক্টোবর মাছ ধরতে বঙ্গোপসাগরে যায়।

শনিবার সকালে সুন্দরবন উপকূলের ডিমেরচর সংলগ্ন বঙ্গোপসাগরে মাছ ধরতে থাকে। এক পর্যায়ে তারা ভাটিতে গভীর সমুদ্রে যেতে থাকলে ভারতীয় নৌবাহিনীর একটি জাহাজ বাংলাদেশ জলসীমায় অনুপ্রবেশ করে তাদের ধরে নিয়ে যায়।

সোমবার দুপুরে ট্রলার মালিক হাতেম আলী মোল্লার ছেলে জামাল মোল্লা বলেন, ‘আমার বাবা ও ভাইসহ ১৪ জন জেলেকে ভারতীয় জলসীমায় অবৈধ অনুপ্রবেশের অভিযোগ এনে পশ্চিমবঙ্গের দক্ষিণ ২৪ পরগুনা থানা পুলিশের কাছে সোপর্দ করা হয়েছে। আমার ভাই কামাল মোবাইল ফোনে বিষয়টি জানিয়েছেন। আমাদের সমুদ্রসীমায় ঢুকে জেলেদের ধরে নিয়ে উল্টো অভিযোগ দিয়েছে ভারতীয় নৌবাহিনী।’

ট্রলার মালিক ও জেলেদের স্বজনেরা অবিলম্বে অপহৃতদের বাংলাদেশে ফিরিয়ে আনার জন্য সরকারের কাছে দাবি জানিয়েছেন। একই সঙ্গে তারা বাংলাদেশের সমুদ্রসীমায় ভিন দেশী সকল মাছধরা ট্রলার অনুপ্রবেশ রোধ ও বাংলাদেশ নৌবাহিনীর সার্বক্ষণিক টহল জোরদারের আহ্বান জানান।

উল্লেখ, গত এক সপ্তাহে বাংলাদেশের সমুদ্রসীমায় মাছ ধরার সময় দু’দফায় ১৪ জন করে দুটি ট্রলারসহ মোট ২৮ ভাতীয় জেলেদের আটক করে বাংলাদেশ নৌবাহিনী। বর্তমানে আটক ভারতীয় ওই জেলেরা বাগেরহাট জেলা কারাগারে আছেন।
২০ অক্টোবর ২০১৪ :: স্পেশাল করেসপন্ডেন্ট,
বাগেরহাট ইনফো ডটকম।।
টুটুল/আই হক-এনআরএডিটর/বিআই
বাগেরহাট ইনফো ডেস্কWriter: বাগেরহাট ইনফো ডেস্ক (1851 Posts)