প্রথমবার তথ্যচিত্রে কবি রুদ্র

বেশ্যাকে তবু বিশ্বাস করা চলে/ রাজনীতিকের ধমনী শিরায় সুবিধাবাদের পাপ- কিংবা ভালো আছি ভালো থেকো/ আকাশের ঠিকানায় চিঠি লিখো উচ্চারণের এমন দ্রোহ প্রেমের কবি রুদ্র মুহাম্মদ শহীদুল্লাহ মৃত্যুর পর প্রথমবারের মত জীবন্ত হচ্ছেন তথ্যচিত্রে।

rudro২৫ বছর আগে চলে যাওয়ার দিনে তাকে নিয়ে তথ্যচিত্র প্রচার করবে বেসরকারি টেলিভিশন চ্যানেল টোয়েন্টিফোর। রোববার রাত সাড়ে ৮টায় প্রচার হবে তথ্য চিত্রটি।

‘ভালো আছি ভালো থেকো’ শিরোনামে কালজয়ী এ কবিকে নিয়ে তথ্যচিত্র নির্মাণ করেছেন শাহেদ সীমান্ত। এর নামকরণ করা হয়েছে কবির বিখ্যাত গান ‘ভালো আছি ভালো থেকো’ অবলম্বনে। তথ্যচিত্রের জন্য গানটি নতুনভাবে গেয়েছেন শংকর সাঁওজাল।

৩২ মিনিট ব্যাপ্তির এ তথ্যচিত্রে রুদ্রকে নিয়ে স্মৃতিচারণ করেছেন কবিরুদ্রকে নিয়ে কথা বলেছেন মুহম্মদ নূরুল হুদা, অসীম সাহা, কামাল চৌধুরী, মোহন রায়হান, কথাশিল্পী ইসহাক খান ও কবির পরিবার-পরিজন।

বাবার কর্মস্থল বরিশাল জেলায় রুদ্র মুহম্মদ শহিদুল্লাহর জন্ম। তার আদি বাড়ি বাগেরহাট জেলার মংলা উপজেলার মিঠেখালি গ্রামে। জীবদ্দশায় তিনি ছিলেন সম্মিলিত সাংস্কৃতিক জোট ও জাতীয় কবিতা পরিষদের প্রতিষ্ঠাতা যুগ্ম সম্পাদক।

১৯৭৫ সালের পর সরকারবিরোধী ও স্বৈরাচারবিরোধী সংগ্রামে সক্রিয়ভাবে অংশ নেন তিনি। বাংলাদেশের মুক্তিযুদ্ধ, দেশাত্মবোধ, গণআন্দোলন, ধর্মনিরপেক্ষতা ও অসাম্প্রদায়িকতা তার কবিতার গুরুত্বপূর্ণ অনুষঙ্গ। এ ছাড়া স্বৈরতন্ত্র ও ধর্মের ধ্বজাধারীদের বিরুদ্ধে তার কণ্ঠ ছিল উচ্চকিত।

৩৪ বছরের স্বল্পায়ু জীবনে সাতটি কাব্যগ্রন্থ ছাড়াও গল্প, কাব্যনাট্যসহ অর্ধশতাধিক গান রচনা ও সুরারোপ করেছেন। ১৯৮১ সালের ২৯ জানুয়ারি বর্তমানে নির্বাসিত নারীবাদী লেখিকা তসলিমা নাসরিনকে বিয়ে করেন তিনি। ১৯৮৮ সালে তাদের মাঝে বিচ্ছেদ ঘটে। ১৯৯১ সালের ২১ জুন রুদ্র ঢাকায় মৃত্যুবরণ করেন।

অনুষ্ঠানটির নির্মাতা শাহেদ বলেন, ‘সময়-সমাজের অসঙ্গতির বিরুদ্ধে উচ্চকিত কবির প্রতি সময়ের দায়বোধ থেকে অনুষ্ঠানটি করেছি। গত ২৫ বছরে যা কেউ করেনি। রুদ্রভক্তদের এটি ভালো লাগবে বলে আমার বিশ্বাস।’

১৯ জুন ২০১৫ :: শিল্প-সাহিত্য ডেস্ক,
বাগেরহাট ইনফো ডটকম।।
এসআই/এইচ/এনআরএ/বিআই
বাগেরহাট ইনফো ডেস্কWriter: বাগেরহাট ইনফো ডেস্ক (1853 Posts)