শরীরে আগুন লাগিয়ে গৃহবধূর আত্মহত্যা

স্টাফ করেসপন্ডেন্ট | বাগেরহাট ইনফো ডটকম

বাগেরহাটের মোরেলগঞ্জে নুপুর বেগম (২০) নামে এক গৃহবধূ শরীরে আগুন লাগিয়ে আত্মহত্যা করেছেন।

সোমবার (১৩ মার্চ) রাতে মোরেলগঞ্জ উপজেলার বহরবুনিয়া ইউনিয়নের ঘষিয়াখালী গ্রামের মো. অলি শরীফের বাড়িতে এ ঘটনা ঘটে।

তবে কি কারণে ওই গৃহবধূ গায়ে আগুন লাগিয়ে আত্মহত্যা করেছেন তা নিশ্চিত করে বলতে পারেনি পুলিশ।

নুপুর বেগম পাশের উত্তর ফুলহাতা গ্রামের নাছির জমাদ্দারের মেয়ে এবং ঘষিয়াখালি গ্রামের মো. সোলায়মান শরীফের স্ত্রী।

বহরবুনিয়া ইউনিয়নের ৮ নং ওয়ার্ডের ইউপি সদস্য মো. জাহিদুল ইসলাম খলিফা বাগেরহাট ইনফো ডটকমকে বলেন, পরিবারের সদস্যদের অনুপোস্থিতিতে নুপুর বেগম ঘরের দরজা আটকে শরীরে আগুন ধরিয়ে দিয়েছে। সোলায়মানের প্রতিবেশিদের কাছ থেকে এমন খবর পেয়ে আমি দ্রুত ওই বাড়িতে যাই। এসময় ভেতর থেকে ঘরের দরজা আটকা ছিলো।

‘আমি দরজা ভেঙ্গে ভেতরে ঢুকে নুপুরকে অগ্নিদগ্ধ অবস্থায় মেঝেতে দেখতে পাই। তার শরীরের অধিকাংশ স্থান পুড়ে গেছে। স্থানীয় শল্য চিকিৎসককে ডাকলে সে তাঁকে মৃত ঘোষণা করেন।’

তিনি জানান, প্রেমের সম্পর্ক ধরে ২০১৬ সালের ২৩ মার্চ ঘষিয়াখালি গ্রামের মো. অলি শরীফের ছেলে মো. সোলায়মান শরীফের সঙ্গে নুপরের বিয়ে হয়। চার পাঁচ মাস আগে নুপুরকে ঘরের চাল চুরি করে বিক্রি করে বলে তাঁর শ্বশুর বাড়ির লোকজন অপবাদ দেয়।

এর পর থেকে পরিবারের সদস্যদের মধ্যে প্রায় কলহ হচ্ছিল। ওই কলহের জেরে নুপুর গায়ে আগুন লাগিয়ে আত্মহত্যা করেছে বলে মেয়ের বাবা অভিযোগ করছেন বলে জানান ওই জন প্রতিনিধি।

স্থানীয়দের বরাত দিয়ে মোরেলগঞ্জ থানার পরিদর্শক (তদন্ত) তারক বিশ্বাস বাগেরহাট ইনফো ডটকমকে বলেন, রোববার বিকালে গৃহবধূ নুপুরের স্বামী, শ্বাশুড়ি ও ননদ পাশ্ববর্তি রামপাল উপজেলায় অসুস্থ এক আত্মীয়ের দেখতে দেখতে যান। গতকাল থেকে নুপুর এবং তার শ্বশুর অলি শরীফ বাড়িতে ছিলেন। সোমবার বিকালে শ্বশুর অলি শরীফ বাড়ি থেকে পাশের বাজারে গেলে গৃহবধূ নুপুর ঘরের দরজা বন্ধ করে গায়ে আগুন লাগিয়ে আত্মহত্যা করেন।

খবর পেয়ে রাত ১১টার দিকে ওই বাড়ি থেকে মরদেহ উদ্ধার করে ময়না তদন্তের জন্য বাগেরহাট সদর হাসপাতালের মর্গে পাঠানো হচ্ছে।

কি কারণে তিনি আত্মহত্যা করেছেন তা তদন্ত করে দেখা হচ্ছে বলে জানান ওই পুলিশ কর্মকর্তা।

এজি/এসআই/বিআই/১৩ মার্চ, ২০১৭

বাগেরহাট ইনফো নিউজWriter: বাগেরহাট ইনফো নিউজ (1304 Posts)