বাগেরহাটে ‌‘জেলা ব্র্যান্ডিং’ বিষয়ক কর্মশালা অনুষ্ঠিত

স্টাফ করেসপন্ডেন্ট | বাগেরহাট ইনফো ডটকম

ইতিহাস ঐতিহ্য আর পুরাকীর্তিতে ভরপুর বাগেরহাটে জেলা ব্র্যান্ডিং বিষয়ক কর্মশালা অনুষ্ঠিত হয়েছে।

সোমবার (২৮ মে) সকালে জেলা প্রশাসকের সম্মেলন কক্ষে এই কর্মশালা অনু‌ষ্ঠিত হয়।

বাগেরহাটের জেলা প্রশাসক তপন কুমার বিশ্বাসের সভাপতিত্বে কর্মশালায় সরকারি বিভিন্ন দপ্তর ও বিভাগের কর্মকর্তারা ছাড়াও বিভিন্ন শ্রেণিপেশার প্রতিনিধিরা অংশ নেন। কর্মশালায় জেলা ব্র্যান্ডিং -এ বিষয়বস্তু, কর্মপরিকল্পনা ও লক্ষ্য তুলে ধরেন জেলা প্রশাসনের সহকারী কমিশনার মুহাম্মদ শাহরিয়ার মুক্তার।

মন্ত্রিপরিষদ বিভাগ ও প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয়ের এটুআই (একসেস টু ইনফরমেশন) প্রকল্পের সহযোগীতায় জেলা প্রশাসন আয়োজিত কর্মশালায় জানানো হয়, পর্যটনকে গুরুত্ব দিয়ে বাগেরহাট জেলার ব্রান্ডিংয়ের লক্ষ্য নির্ধারণ করা হয়েছে। এই জন্য পর্যটন শিল্পের বিকাশে জেলার পর্যটন স্পটগুলো বিশ্ববাসীর কাছে তুলে ধরা এবং পর্যটন বান্ধব সুযোগ-সুবিধা সৃষ্টিতে তিন বছর মেয়াদী বিভিন্ন পরিকল্পনা নেওয়া হয়েছে।

কর্মশালায় বিশ্ব ঐতিহ্য ষাটগম্বুজ এবং সুন্দরবনের প্রতীক হিসেবে বাঘ ও হরিণ সম্বলিত বাগেরহাট জেলার লোগ উপস্থাপন করা হয়। জেলা ব্র্যান্ডিং এর স্লোগান কর হয়েছে ‘বাগেরহাট: সুন্দরবনের প্রবেশদ্বার’।

ব্র্যান্ডিং লোগোর কেন্দ্রে বিশ্ব ঐতিহ্য ষাটগম্বুজ মসজিদের অবয়বের পাশে পানির ছাপ। যার মাধ্যমে জেলার ঐতিহাসিক দিঘিগুলো ফুটিয়ে তোলা হয়েছে। বাঘ, হরিণের পাশাপাশি সবুজ গাছপালা ও গোলপাতার মাধ্যমে লোগতে ফুটিয়ে তোলা হয়েছে বিশ্ব ঐতিহ্য সুন্দরবনকে। আর অঙি্কত সড়ক সুন্দরবনের প্রবেশদ্বার হিসেবে মর্মার্থ বহন করবে। সাম্য, শান্ত পরিবেশ এবং সমৃদ্ধ সংস্কৃতিক ঐতিহ্য প্রতিক হিসেবে লোগোয় ব্যবহার করা হয়েছে নীল রঙের।

ব্র্যান্ডিংয়ের মাধ্যমে জেলার ইতিহাস, ঐতিহ্য এবং সংস্কৃতির লালন ও বিকাশ, অর্থনৈতিক প্রবৃদ্ধিতে গতি সঞ্চার, জেলার ভৌগোলিক নির্দেশক পণ্য শনাক্তকরণ এবং তার নিবন্ধনে সহায়তা প্রদান, ‘এক জেলা এক পণ্য’ কর্মসূচি বাস্তবায়নে সহয়তা, স্থানীয় উদ্যোক্তা তৈরি, অবকাঠামোগত উন্নয়ন, পর্যটনশিল্পের বিকাশে বিভিন্ন কর্মপরিকল্পনার কথা তুলে ধরা হয়।

অনুষ্ঠানে অন্যান্যের মধ্যে বক্তব্য দেন, অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক (সার্বিক) মো. জহিরুল ইসলাম, অতিরিক্ত পুলিশ সুপার সাহাদাত হোসেন, সুন্দরবন পূর্ব বন বিভাগের বিভাগীয় বন কর্মকর্তা (ডিএফও) মাহমুদুল হাসান, বাগেরহাট জাদুঘরের কাস্টোডিয়ান গোলাম ফেরদাউস, শিক্ষাবিদ মোজাফফর হোসেন, অধ্যক্ষ বুলবুল কবির, বাগেরহাট প্রেসক্লাব সভাপতি আহাদ হায়দার প্রমুখ।

বক্তারা বলেন, দেশের ৩টি বিশ্ব ঐতিহ্য স্থানের দুটির অবস্থান বাগেরহাট জেলায়। ঐতিহাসিক ষাটগম্বুজ মসজিদসহ খানজাহানের স্থাপত্য এবং সুন্দরবন এ জেলার গর্ব। এই দুই বিশ্ব ঐতিহ্য স্থান ছাড়াও জেলার শিল্প-সংস্কৃতি, ঐতিহ্য, বিখ্যাত খাবার, প্রসিদ্ধ পণ্য সামগ্রী তুলে ধরতে হবে। জেলা ব্রান্ডিংয়ের মাধ্যমে পর্যটন বিকাশের মাধ্যমে এই খাতে নতুন কর্মসংস্থান ও অর্থনৈতিক সম্ভাবনার দিগন্ত উন্মোচিত হবে। এক্ষেত্রে সরকারে পাশাপাশি উদ্যোক্তাদের এগিয়ে আসার আহ্বান জানান বক্তারা।

এইচ//এসআই/বিআই/২৮ মে ২০১৮

বাগেরহাট ইনফো নিউজWriter: বাগেরহাট ইনফো নিউজ (1498 Posts)