বাগেরহাটে ভুয়া এনজিওর নামে অর্ধকোটি টাকা হাতিয়ে নিয়ে লাপাত্তা: মামলা দায়ের, আটক ২

বাগেরহাটে পল্লী ডেভেলপমেন্ট সোসাইটি (পিডিএস) নামের একটি ভূয়া এনজিও সদস্যদের কাছ থেকে অর্ধকোটি টাকা হাতিয়ে নিয়ে পালিয়েছে।

সদস্যদের কাছ থেকে অর্ধকোটি টাকা হাতিয়ে নিয়ে পালিয়ে যাওয়া ভূয়া এনজিও এর সাইনবোর্ড। ছবি: এস এম সামছুর রহমান।

সদস্যদের কাছ থেকে অর্ধকোটি টাকা হাতিয়ে নিয়ে পালিয়ে যাওয়া ভূয়া এনজিও এর সাইনবোর্ড। ছবি: এস এম সামছুর রহমান।

এ ঘটনায় মঙ্গলবার দুপুরে বাগেরহাট মডেল থানায় পূর্ববাসাবাটি এলাকার আজাহার আলীর ছেলে শেখ ইদ্রীস আলী বাদী হয়ে একটি মামলা দায়ের করেছে। ঘটনার সাথে জড়িত থাকার অভিযোগে বাগেরহাট ও ফকিরহাট থানা পুলিশ ২ জনকে আটক করেছে।

আটককৃতরা হলো, ফকিরহাট উপজেলার আট্রাকী গ্রামের খান মিজানুর রহমানের ছেলে আরিফুল ইসলাম নিপু এবং ফকিরহাট থানায় আটক হয়েছে বরিশাল জেলার আগুনজোরা এলাকার তোফাজ্জেলের ছেলে সরোয়ার হোসেন। আটককৃতদের আদালতে সোপর্দ করা হয়েছে।

পুলিশ ও ভূক্তভোগীরা জানান, পল্লী ডেভেলপমেন্ট সোসাইটি (পিডিএস) রাঙ্গামাটি জেলার রাঙ্গুনিয়ার রওজার হাট বাজারে রেজিষ্টার্ড কার্যালয় দেখিয়ে (গভঃরেজিঃ নং এস-৮৭০৩ (৭২৪)/২০০৯) বাগেরহাট শহরে ভিআইপি রোড এলাকায় মৃত আঃ সালাম পাইকের বাড়ি ভাড়া নিয়ে তাদের কার্যক্রম শুরু করে। সংস্থাটি প্রায় দেড় মাস ধরে মাঠকর্মী নিয়োগ করে সাধারণ মানুষকে সহজ শর্তে ঋণ দেয়ার কথা বলে তাদের কাছ থেকে ঋণের ১০ ভাগ হারে সঞ্চয় আদাই করে।

এভাবে কোন জামানত ছাড়াই ১০ হাজার টাকা থেকে শুরু করে ২-৫ লাখ টাকা ঋণ দেয়ার কথা বলে হাজার হাজার সদস্য তৈরি করে তাদের কাছ থেকে অর্ধকোটি  টাকা হাতিয়ে নিয়ে উধাও হয়েছে। রোববার প্রায় শতাধিক সদস্যকে ঋণ দেয়ার কথা ছিল। কিন্তু এদিন সদস্যরা অফিসে এসে তালা ঝুলতে দেখে।

এ ঘটনা জানাজানি হলে হাজার হাজার সদস্য এদিন রাত থেকে অফিসে আসা শুরু করে। খবর পেয়ে বাগেরহাট মডেল থানা পুলিশ রবিবার রাত ১১ টার সময় ওই অফিসটি পরিদর্শন করে অফিসে থাকা মালামাল জব্দ করে।

এসময় প্রতারিত গ্রাহকরা তাদের টাকা ফেরত পাওয়ার জন্য প্রশাসনের হস্তক্ষেপ কামনা করে। তারা বাগেরহাট ইনফোর কাছে বলেন, লোভনীয় অফার দিয়ে এনজিওটি তাদের কাছ থেকে হাতিয়ে নিয়েছে লাখ লাখ টাকা। ভুইফোড় ওই সংস্থাটি জেলার চিতলমারী, ফকিরহাট, যাত্রাপুর, সাইনবোর্ড, বাধালসহ বিভিন্ন এলাকায় একই সাথে কার্যক্রম শুরু করে।

ওই সব এলাকায় খোঁজ নিয়েও এ প্রতারণার তথ্য পাওয়া গেছে। একই সাথে ওই সংস্থার সব কয়টি অফিস বন্ধ করে কর্মকর্তা-কর্মচারীরা লাপাত্তা হয়েছে। সদস্যরা তাদের পাওনা বুঝে পাওয়ার জন্য সঞ্চয়ী হিসাবের জমা বই নিয়ে বাগেরহাট মডেল থানায় হাজির হন।

বাগেরহাট মডেল থানার এস আই আসিকুর রহমান বাগেরহাট ইনফোকে জনান, সাধারন মানুষের সরলতার সুযোগ নিয়ে ওই সংস্থাটি ঋণ দেয়ার কথা বলে সঞ্চয়ের টাকা নিয়ে পালিয়ে গেছে।

এবিষয়ে মামলা দায়ের করা হয়েছে, তদন্ত করে আইনানুগ ব্যবস্তা গ্রহন করা হবে।

২৮-০৫-২০১৩ :: এস এম সামছুর রহমান,
বিশেষ প্রতিনিধি, বাগেরহাট ইনফো ডটকম।।

ইনফো ডেস্কWriter: ইনফো ডেস্ক (1855 Posts)