বিএনপি-আ.লীগ সংঘর্ষের ঘটনায় ৭০০ বিএনপি নেতা-কর্মীর নামে পৃথক ২ টি মামলা দায়ের

বাগেরহাট সদর উপজেলার গোটাপারা ইউনিয়নের মুক্ষাইট বাজরে এলাকায় শনিবার বিকলে বিএনপি ও আওয়ামী লীগের সংঘর্ষের ঘটনায় পৃথক দুটি মামলা হয়েছে। এই মামলায় জেলা বিএনপির সভাপতি এমএ সালামসহ ৭শ বিএনপি ও অঙ্গ সংগঠনের নেতা-কর্মীকে আসামী করা হয়েছে।

মামলা দুটির একটিতে বাদী হয়েছে সংঘর্ষে আহত সদর মড়েল থানা পুলিশের উপ-পরিদর্শক (এসআই) কামরুল ইসলাম ও অপরটিতে বাদী হয়েছে মুক্ষাইট এলাকার আঃলীগ নেতা ও গোটাপাড়া ইউপি সদস্য আব্দুল গফ্ফার। সংঘর্ষের সময়ে আটক ওই দুই বিএনপি নেতাকে এই মামলার এজাহার নামীয় আসামী হিসেবে আটক দেখানো হয়েছে।

পুলিশ বাদী হয়ে দায়েরকৃত মামলায় ৩০ জনের নাম উলে¬খসহ অজ্ঞাত ৩৫০-৪০০ বিএনপি নেতা-কর্মী এবং আঃলীগ নেতা আব্দুল গফ্ফারের দায়েরকৃত মামলায় বাগেরহাট জেলা বিএনপির সভাপতি এমএ সালামকে প্রধান আসামী করে ১১৮ জনের নাম উল্লেখসহ ৩০০ জনকে অজ্ঞাত আসামী করা হয়েছে।

বাগেরহাট সদর মড়েল থানায় শনিবার দিবাগত রাত সাড়ে বারোটা থেকে একটার দিকে মামলা দুটি দায়ের করা হয়।bagerhat10-8-13-001

Related Post :- বাগেরহাটে আওয়ামীলীগ ও বিএনপি’র মধ্যে সংঘর্ষ-গোলাগুলি, উভয়পক্ষের অফিস ভাংচুর
বাগেরহাটে বিএনপি- আ.লীগ সংঘর্ষের ঘটনায় মামলা দায়ের

বাগেরহাট মডেল থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) এরশাদুর কবির চৌধরী রবিবার সকালে বাগেরহাট ইনফোকে জানান, শনিবার বিকলে মুক্ষাইট বাজারে বিএনপি ও আওয়ামীলীগের সংঘর্ষের ঘটনায় রাতে বাগেরহাট থানায় পুলিশ ও এক ইউপি সদস্য বাদী হয়ে দুটি মামলা দায়ের করেছে। এই দুটি মামলায় ৭০০জনকে আসামী করা হয়েছে।

উল্লেখ্য, শনিবার বিকালে বাগেরহাটের মুক্ষাইট বাজারে বিএনপি’র অফিস উদ্বোধনী অনুষ্ঠান ও আওয়ামী লীগের ১৫ আগস্ট উপলক্ষে প্রস্তুতি সভা চলাকালে উভয় পক্ষের বাগবিতন্ডা থেকে ব্যাপক সংঘর্ষে ছড়িয়ে পড়ে। পরে উভয় পক্ষের বিক্ষুদ্ধ নেতা-কর্মীরা ভাংচুর, অগ্নিসংযোগ ও গোলাগুলির ঘটনা ঘটায়। সংঘর্ষের সময়ে স্থানীয় আওয়ামীলীগ অফিস ভাংচুর ও বিএনপি অফিসে অগ্নিসংযোগ করা হয়।

১১ আগষ্ট ২০১৩ :: করেসপন্ডেন্ট, বাগেরহাট ইনফো ডটকম
ইনফো ডেস্কWriter: ইনফো ডেস্ক (1855 Posts)