শরণখোলায় উপজেলা নির্বাহী অফিসের কর্মচারীর বিরুদ্ধে অর্থ আত্মসাতের অভিযোগ

বাগেরহাটের শরণখোলায় উপজেলা নির্বাহী অফিসের ক্লার্ক আ. সালামের বিরুদ্ধে নির্মানাধিন মার্কেটে ঘর পাইয়ে দেয়ার নামে লক্ষাধিক টাকা আত্মসাতের অভিযোগ পাওয়া গেছে।
অভিযোগ সুত্রে জানা গেছে, উপজেলার পাঁসরাস্তা এলাকায় পানি উন্নয়ন বোর্ডের জমিতে নির্মানাধিন মার্কেটে ঘর পাইয়ে দেয়ার নামে ঐ কর্মকর্তা স্থানীয় নজরুল ইসলাম খানের কাছ থেকে মোট ১ লক্ষ বিশ হাজার টাকা নিয়ে আত্মসাত করেছেন।
মার্কেট সংলগ্ন এলাকার বাসিন্দা আবুল হারেজ খানের ছেলে অবসরপ্রাপ্ত সার্জেন্ট মো. নজরুল ইসলাম খান লিখিত অভিযোগে জানা যায়, সম্প্রতি উপজেলা প্রশাসনের উদ্যোগে রায়েন্দা পাঁচরাস্তা এলাকায় পানি উন্নয় বোর্ডের জমি ভরাট করে তাতে মার্কেট নির্মানের কাজ শুরু হয়। সেখান থেকে একটি দোকানঘর পাইয়ে দেয়ার কথা বলে ক্লার্ক আ. সালাম নজরুল ইসলামের কাছ থেকে ঝই- ৪৪৮১৮১৩, ঝই- ৪৪৮৪৮১৬ এবং ঝই- ৪৪৮৪৮১৭ নং চেকের মাধ্যমে স্থানীয় সোনালী ব্যাংক থেকে তিন কিস্তিতে মোট এক লাখ ২০ হাজার টাকা গ্রহন করেন।
কিন্তু পরবর্তীতে ওই দোকানঘর তিনি তাকে না দিয়ে অন্যত্র বিক্রি করে দেন।
দোকান না পেয়ে টাকা ফেরৎ চাইলে আত্মসাতের উদ্দেশে ওই ক্লার্ক টালবাহানা শুরু করলে প্রতারনার বিষয়টি তিনি উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তাসহ সংশ্লিষ্ট উর্ধ্বতন মহলেও লিখিতভাবে অবহিত করেন।
এব্যাপারে আ. সালামের কাছে জানতে চাইলে তিনি বাগেরহাট ইনফোকে জানান, ঘর বিক্রি নয়, যৌথভাবে ব্যবসা করার জন্য তার কাছ থেকে টাকা নেয়া হয়েছে।
তবে এব্যপারে শরণখোলা উপজেলা নির্বহী কর্মকর্তার সাথে (তার মোবইলে) কথা বলার চেষ্টা করা হলেও তিনি ফোন-রিসিভ না করায় তার বক্তব্য পাওয়া যায়নি।

 

০৯ সেপ্টেম্বর ২০১৩ :: উপজেলা করেসপন্ডেন্ট,
বাগেরহাট ইনফো ডটকম।। 

ইনফো ডেস্কWriter: ইনফো ডেস্ক (1855 Posts)