সুন্দরবনে কোস্টগার্ড-বনদস্যু ‘বন্দুকযুদ্ধ’

সুন্দরবনের মরাকাগা খালে বনদস্যু আলিফ বাহিনী ও কোস্টগার্ডের মধ্যে বন্দুক যুদ্ধের ঘটনা ঘটেছে। পরে অস্ত্র ও অপহৃত এক জেলেকে উদ্ধার করা হয়েছে বলে জানিয়েছে উপকূলরক্ষী বাহিনী কোস্টগার্ড।
মংলাস্থ কোস্টগার্ড পশ্চিম জোনের অপারেশন অফিসার লে. এম মহিউদ্দিন মজুমদার জানান, মুক্তিপণ দাবিতে দস্যু আলিফ বাহিনী পশ্চিম সুন্দরবনের কয়রার মরাকাগা খালে জেলেদের জিম্মি করে রেখেছে খবর পেয়ে ওই এলাকায় শনিবার রাতে অভিযান চালানো হয়।
এ সময় তাদের উপস্থিতি টের পেয়ে বনদস্যুরা গুলি চালালে তারাও পাল্টা গুলি চালায়। দু’পক্ষের মধ্যে থেমে থেমে প্রায় ৫ ঘণ্টা বন্দুকযুদ্ধ চলে। এক পর্যায়ে আলিফ বাহিনীর সদস্যরা বনের মধ্যে পালিয়ে যায়।
পরে ঘটনাস্থল থেকে ৪টি একনালা পয়েন্ট টুটুবোর, ৬টি এলজি রাইফেল, ৫টি পাইপগান ও ৫টি ওয়ান শুটারগান, ৩১০ রাউন্ড গুলি, সাড়ে সাত কেজি হরিণের মাংস, দুইটি নৌকা ও অন্যান্য মালামালসহ অপহৃত এক জেলেকে উদ্ধার করা হয়।
এসময় কোস্টগার্ড সদস্যরা দস্যুদের লক্ষ্য করে প্রায় ৩০ রাউন্ড এবং দস্যুরা প্রায় অর্ধশত রাউন্ড গুলি ছোড়ে। তবে এতে হতাহতের কোনো ঘটনা ঘটেনি বরে জানান কোস্টগার্ড পশ্চিম জোনের ঐ কর্মকর্তা।
উদ্ধার হওয়া জেলে আসাদুল ইসলাম (৩৫) কয়রা উপজেলার গোলখালি গ্রামের আব্দুস সাত্তারের ছেলে। তবে এ ঘটনায় কোনো বনদস্যুকে আটক করতে পারেনি কোস্টগার্ড।
২২ সেপ্টেম্বর ২০১৩ :: নিউজ ডেস্ক,
বাগেরহাট ইনফো ডটকম।।
এসআই-ইনপুট নিউজ এডিটর/বিআই
ইনফো ডেস্কWriter: ইনফো ডেস্ক (1855 Posts)