আধিপত্য বিস্তারকে কেন্দ্র করে চিতলমারীতে দুই পক্ষের সংঘর্ষে, আহত ৩০

বাগেরহাটের চিতলমারীতে আধিপত্য বিস্তারকে কেন্দ্র করে আওয়ামী লীগের দুই পক্ষের সংঘর্ষে উভয়পক্ষের কমপক্ষে ৩০জন আহত হয়েছেন। পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণ অতিরিক্ত পুলিশ মোতায়েন।

গতকাল (বুধবার) রাতে ও বৃহষ্পতিবার সকালে চিতলমারী উপজেলার বড়বাড়িয়া ইউনিয়নের চরচিংগুড়ি গ্রামের বাদশা শেখ ও এখলাছ মোল্যার সমর্থকদের মধ্যে এই সংঘর্ষের ঘটনা ঘটে।

আহতদের স্থানীয় চিতলমারী, পাশ্ববর্তি গোপালগঞ্জও টুঙ্গিপাড়া হাসপাতলে ভর্তি করা হয়েছে।

আহতরা হলেন, বাদশা শেখের পক্ষের ওমর শেখ (৪০), এনামুল হক (১৪), তরিকুল ইসলাম (১৮), ওলি (২০), জসিম (১৮), রুবেল (২০), সোহাগ মোল্যা (২৫), বাবুল (৩০), রানা (১৮), জিলাল (৩০), আল আমিন (২০), রফিক (২৬), রুবেল (২২), হায়াত আলী (৩৫), ওবায়েদ (২৮), কালাম (২৯), রুহুল (৩০), সেকেন্দার (৩৫), বেলায়েত (৩৩) ও দুলু শেখ (২২) এবং এখলাছ শেখের পক্ষের, মুনসুর শেখ (৬৫), ইঙ্গুল (৪০), কদম শেখ (৩০), অহিদুল শেখ (২২), সোহেল (২৬), আবুল কালাম (৩২), মিঠু (২৪), হাফিজ (৪০), জিলু (৩০) ও রাজু (২২)।

চিতলমারী উপজেলা হাসপাতালেন ডা. উদয় বরণ মন্ডল জানান, রক্তাক্ত অবস্থায় এখানে ৬ জনকে ভর্তি করা হয়। তবে এখন বর্তমানে তারা সবাই আশংকামুক্ত আছে বলে জানান তিনি।

বাগেরহাট সদর সার্কেলের সহকারী পুলিশ সুপার মো. জাহিদুর রহমান দুপুরে বাগেরহাট ইনফোকে জানান, আধিপত্য বিস্তারকে কেন্দ্র করে দীর্ঘদিন ধরে ঐ এলাকার বাদশা শেখ ও এখলাছ মোল্যার মধ্যে বিরোধ চলে আসছে।

স্থানীয় চিংগুড়ি বাজারে সিগারেট কেনাকে কেন্দ্র করে বুধবার রাতে ও বৃহষ্পতিবার সকালে দু’পক্ষের সমর্থকদের মধ্যে থেমে থেমে সংঘর্ষ হয়। তবে এঘটনায় কাউকে আটক করা যায়নি।

চিতলমারি থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মনিরুজ্জামান মোল্লা বাগেরহাট ইনফোকে জানান, পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে সেখানে অতিরিক্ত পুলিশ মোতায়েন করা হয়েছে। এ ঘটনায় পৃথক দু’টি মামলা দায়েরের প্রস্তুতি চলছে।

২৬ সেপ্টেম্বর ২০১৩ :: নিউজ ডেস্ক,
বাগেরহাট ইনফো ডটকম।।

এসআইএইচ-নিউজ এডিটর/বিআই

ইনফো ডেস্কWriter: ইনফো ডেস্ক (1855 Posts)