মন্দিরে অগ্নিসংযোগ, প্রতিমা ভাংচুর

BagerhatPhoto01(09-01-2014)বাগেরহাটের মোরেলগঞ্জ উপজেলার হিন্দু অধ্যুষিত গ্রামে দু’টি মন্দিরে আগুন দিয়েছে দুর্বৃত্তরা।

বুধবার গভীর রাতে উপজেলার রামচন্দ্রপুর ইউনিয়নের উত্তর কচুবুনিয়া এবং কামলা গ্রামে এঘটনা ঘটে।

দুর্বৃত্তরা মন্দির দু’টিতে কেরোসিন তেল ঢেলে আগুন দেয় এবং একটি মন্দিরে থাক রাধা-গোবিন্দ মূর্তি ভাংচুর করে।

ক্ষতিগ্রস্থ মন্দির দুটি হচ্ছে- উত্তর কচুবুনিয়া সার্বজনিন শ্রী শ্রী রাধা-গোবিন্দ মন্দির এবং কামলা জিলবুনিয়া সার্বজনিন কালি মন্দির। এই ঘটনার পর এলাকার হিন্দু সম্প্রদায়ের মানুষদের মধ্যে আতংক সৃষ্টি হয়েছে।

বৃহস্পতিবার সকালে সরেজমিন মন্দির দুটি পরিদর্শন করে দেখা গেছে, উত্তর কচুবুনিয়া গ্রামের রাধা-গোবিন্দ মন্দিরে রাধা-গোবিন্দ যুগল মূর্তি ভেঙে উপুড় হয়ে পড়ে আছে। পাকা ঐ মন্দির কক্ষের বাইরে লাগোয়া একটি টিন ও কাঠের ঘর আগুনে সম্পূর্ণ ভস্মিভূত হয়ে গেছে। ঘটনাস্থল থেকে গ্রামবাসীরা কোরোসিন রাখার একটি প্লাস্টিকের বোতল উদ্ধার করেছেন।

BagerhatPhoto02(09-01-2014)মন্দির ব্যবস্থাপনা কমিটির সাধারণ সম্পাদক পরিতোষ হালদার জানান, আগে এই ঘরটিই ছিল মূল মন্দির। বর্তমান পাকা ঘর নির্মাণের পর থেকে এই ঘরটি মন্দিরের বিভিন্ন মালামাল রাখার জন্য ব্যবহুত হয়।

মন্দিরে জমিদাতা ও ঐ মন্দিরের পাশের বাসিন্দা সুনীল বিশ্বাস ও সেবিকা মণ্ডল জানান, রাত দেড়টার দিকে মন্দিরে আগুন ধরার পর তারা শব্দ পেয়ে তারা ঘর থেকে বাইরে আসেন। এসময় দূর থেকে মন্দির এলাকায় অন্তত চার-পাঁচ জন সন্দেহভাজন লোককে দৌড়াদৌড়ি করতে দেখেছেন।

তবে তারা ঐ লোকদের চিনতে পারেননি। গ্রামবাসী আগুন নেভাতে এগিয়ে আসার পর তাদের আর দেখা যায়নি।

মন্দির ব্যবস্থাপনা কিমিটির সভাপতি নরেন্দ্রনাথ মৃধা বলেন, দেশের বিভিন্ন স্থানে সংক্যালঘু হিন্দু সম্প্রদায়ের ঘর-বাড়ি, ব্যবসা প্রতিষ্ঠান ও মন্দির ভাংচুর অগ্নিসংযোগ লুঠপাট হচ্ছে। এ সব সংবাদে আমরাসহ বাগেরহাটের বিভিন্ন এলাকায় বসবাসরত হিন্দু সম্প্রদায়ের মানুষ আতংকিত।

এছাড়া, উপজেলার কামলা জিলবুনিয়া সার্বজনিন কালি মন্দিরের মূল ঘরের ভেতরে খড়-কুটার একটি ছোট গাঁদায় আগুন ধরানো হয়েছিলো। তবে, এতে মন্দির গৃহ বা প্রতিমার কোন ক্ষতি হয়নি।

মন্দির ব্যবস্থাপনা কমিটির সাধারণ সম্পাদক সুখরঞ্জন শিকদার বলেন, রাতে তারা আগুনের বিষয়টি টের পাননি। ভোরে মন্দিরে আসা পূণ্যার্থীরা মন্দিরের ভেতরে নিভে যাওয়া খড়-কুটো দেখতে পান। এর পর আগুন লাগানোর চেষ্টার খবর ছড়িয়ে পড়ে।

ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেছেন সেনাবাহিনী, পুলিশ ও র‌্যাব সদস্যরা। এদিকে ঘটনার সাথে জড়িত থাকার সন্দেহে পুলিশ ঐ গ্রাম থেকে ৩ জনকে জিজ্ঞাসাবাদের জন্য আটক করেছে।

এরা হলেন আব্দুল হালিম শেখ, আসাহাক হাওলাদার এবং মিন্টু শেখ। পুলিশ তাদের বিস্তারিত পরিচয় না জানিয়ে বলেছে আটককৃতরা বিএনপি সমর্থক। তাদের জিজ্ঞাসাবাদ করা হচ্ছে।

০৯ জানুয়ারি ২০১৪ :: নিউজ ডেস্ক,
বাগেরহাট ইনফো ডটকম।।
এজি/এসআই হক-নিউজরুম/বিআই
ইনফো ডেস্কWriter: ইনফো ডেস্ক (1855 Posts)