আটক ভারতীয় জেলেদের পুশব্যাক

বঙ্গোপসাগর দিয়ে অবৈধ ভাবে বাংলাদেশর জলসীমায় অনুপ্রবেশ এবং মৎস আহরণের অভিযোগে নৌবাহিনী কর্তিক আটক ৪৪ ভারতীয় জেলেকে বাগেরহাটের মংলা দিয়ে সমুদ্র পথে পুশব্যাক করা হয়েছে।

আদালতের নির্দেশে শুক্রবার সকালে বাগেরহাট জেলা কারাগার থেকে ওই ভারতীয় জেলেরা মুক্তি পান।

বাগেরহাট জেলা কারাগার থেকে মুক্তির পর পুশব্যাক কৃত ওই জেলেদের বাড়ি ভারতের পশ্চিম বাংলার চব্বিশ পরগনার জেলার  কাকদ্ধীপ থানার বিভিন্ন গ্রামে।

জানা গেছে, গত ২৩ ডিসেম্বর মংলা নৌবাহিনীর সদস্যরা নিয়মিত টহল দেওয়ার সময় বঙ্গোপসাগরের বাংলাদেশ জলসীমায় ফেয়ারওয়ে বয়া এলাকা থেকে অবৈধ অনুপ্রবেশের অভিযোগে তিনটি ট্রলারসহ ৪৪ ভারতীয় জেলেকে আটক করে মংলা থানায় সোপর্দ করে। পরে তাদের বিরুদ্ধে অবৈধ অনুপ্রবেশ ও মাছ চুরির অভিযোগে থানায় মামলা করা হয়।

এর আগে ২০ ডিসেম্বর নৌবাহিনীর সদস্যরা বাংলাদেশ জলসীমা থেকে ভারতীয় ওই ২৯ জেলেকে আটক করে।

গত ১৬ জানুয়ারি আদালতের নির্দেশে বাগেরহাট জেলা কারাগার থেকে ২৯ ভারতীয় জেলেকে মুক্তি দেওয়ার পর মংলা সমুদ্র পথে তাদেরকে পুশব্যাক করা হয়।

বাগেরহাট জেলা কারাগারের জেলার মো. বদরুদ্দোজা জানান, বাগেরহাট চিফ জুডিসিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট আদালতের নির্দেশ পাওয়ার পর জেলা কারাগারে বন্দি ভারতীয় ৪৪ জেলেকে মুক্তি দেওয়া হয়েছে। শুক্রবার সকালে বাগেরহাট কারা কর্তৃপক্ষ, জেলা প্রশাসন ও পুলিশ প্রশাসনের পক্ষ থেকে ওই জেলেদেরকে ভারতীয় দুতাবাস কর্মকর্তাদের কাছে হস্তান্তর করা হয়।

মংলা থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মো. আমিনুল ইসলাম জানান, নৌবাহিনীর হাতে আটক ভারতীয় ৪৪ জেলের বিরুদ্ধে দায়েরকৃত মামলা তদন্ত শেষে পুলিশ আদালতে চুড়ান্ত প্রতিবেদন (চার্জ শীট) দাখিল করে। রিপোর্টে জানান হয় ঘন কুয়াশার কারণে পথ ভুলে ওই জেলেরা বাংলাদেশ জলসীমায় প্রবেশ করে ছিল।

উল্লেখ, এর আগে ২০১২ সালের ৪ নভেম্বর দুটি ট্রলারসহ ২৬ ভারতীয় জেলে বাংলাদেশের জলসীমায় অবৈধ অনুপ্রবেশ করে মাছ শিকার কালে নৌ-বাহিনীর হাতে আটক হয়। তবে, মামলা শেষ হবার আগেই ভারতীয় দূতাবাসের মাধ্যমে অনুরোধে স্বরাষ্ট্র মন্ত্রনালয়ের নির্দেশে ছেড়ে দেয়া হয় তাদের।

অন্যদিকে, ২০১০ সালের ৬ আগস্ট বঙ্গোপসাগরে বাংলাদেশ জলসীমায় মাছ শিকার কালে ঝড়ের কবলে পড়ে ভারতীয় জলসীমায় অনুপ্রবেশের অভিযোগে দুটি ট্রলারসহ ২১ বাংলাদেশী জেলেকে আটক করে সে দেশের কোস্টগার্ড। আটককৃতদের মধ্যে ১৯ জেলে ভারতের আলীপুর কারাগারে ৩ বছরের সশ্রম কারাদন্ড এবং ৫১ হাজার ৫০০ ভারতীয় রূপী জরিমানা প্রদান করে গত বছরের (২০১৩ সালের) ২৩ ডিসেম্বর যশোরের বেনাপোল সিমান্ত দিয়ে দেশে ফেরেন। তবে আটককৃতদের মধ্যে ২ বাংলাদেশী জেলে মারা যায় ওই কারাগারে।

আটক ৪৪ ভারতীয় জেলে কারাগারে

২৪ জানুয়ারি ২০১৪ :: নিউজ ডেস্ক,
বাগেরহাট ইনফো ডটকম।।
এসআই হক-নিউজরুম এডিটর/বিআই
ইনফো ডেস্কWriter: ইনফো ডেস্ক (1855 Posts)