বাগেরহাটে আ’লীগ-বিএনপি সংঘর্ষ; অগ্নিসংযোগ

BagerhatPhoto-01(16-03-2014)বাগেরহাটের রামপালে আওয়ামী লীগ-বিএনপির মধ্যে সংঘর্ষে ঘটনা ঘটেছে। এতে জেলা আ’লীগের প্রচার সম্পাদক নাজমুল কবির ঝিলাম তালুকদার (৪৮) সহ উভয় পক্ষের অন্তত্য ১৫ জন আহত হয়েছে।

বোববার সন্ধায় রামপাল উপজেলার সন্নাসী বাজার এলাকায় এঘটনা ঘটে।

আহত নাজমুল কবির ঝিলাম উপজেলার মল্লিকের বেড় ইউনিয়ন পরিষদের চেয়রম্যান।

সংঘর্ষে আহত ইউপি চেয়ারম্যান নাজমুল কবির ঝিলাম (৪৮), মনিরুজ্জামান (৪৫) ও লাকি খাতুনসহ নামে ৪ জনকে বাগেরহাট সদর হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে।

স্থানীয় সূত্র জানান, উপজেলার সন্নাসী বাজারে ইউপি চেয়ারম্যান নাজমুল কবির ঝিলামের নেতৃত্বে আ’লীগ কর্মীরা বিএনপি কর্মীদের উপরে হামলা চালায়। পরে স্থানীয় বিএনপি নেতা-কর্মীরা একত্রীত হয়ে তাদের উপর পাল্টা হামলা চালায়।

এঘটনায় উভয় পক্ষের মধ্যে সংঘর্ষ ছড়িয়ে পড়লে উত্তেজিত আওয়ামী লীগের নেতা-কর্মীরা বিএনপি নেতা জাহিদ সহ ৫/৬টি বসত বাড়ি এবং ১০/১২টি দোকান-পাট ভাংচুর ও অগ্নি সংযোগ করে।

বাগেরহাট দমকল ইউনিটের সহকারী উপ পরিচালক মো. নজরুল ইসলাম জানান,  তারা খবর পেয়ে পৌঁছানোর আগেই আগুনে অন্তত চারটি বাড়ি ও একটি মার্কেটের প্রায় ২০টি দোকান পুড়ে যায়। রাত আনুমনিক সাড়ে ১০টার পর আগুন নিয়ন্ত্রনে আনে তারা।

এব্যাপারে ঘটনাস্থলে উপস্থিত রামপাল থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) কাজি দাউদ হোসেন বাগেরহাট ইনফো ডটকমকে জানান, বর্তমানে পরিস্থিতি শান্ত রয়েছে। এলাকায় জন শুন্য হয়ে পড়েছে। সেখানে বিজিবি ও অতিরিক্ত পুলিশ মোতায়েন করা হয়েছে। সেনাবাহিনী ও র‌্যাব সদস্যরা ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেছেন।”

প্রত্যক্ষদর্শী বিএনপির একাধিক কর্মী নাম প্রকাশ না করার শর্তে বলেন, ১৫ মার্চ অনুষ্ঠিত উপজেলা নির্বাচনকে কেন্দ্র করে চেয়ারম্যান নাজমুলের নেতৃত্বে আওয়ামী লীগ কর্মীরা রামপাল উপজেলা বিএনপির যুগ্ম সম্পাদক ওবায়দুল ইসলাম ও তার ভাই জাহিদুল ইসলামের বাড়িতে হামলা করে ভাংচুর করে।

Rampalএসময় তারা শহিদুল, নাজমুল, হালিমসহ স্থানীয় বিএনপির বেশ কয়েক জন কর্মী সমর্থককেও মারধর করে।

এই ঘটনার জের ধরে এলাকায় বিএনপি ও আওয়ামী লীগ কর্মীদের মধ্যে ধাওয়া পাল্টাধাওয়া হয়। পরে সন্ধ্যার আগে উত্তেজিত বিএনপি কর্মীরা মল্লিকের বেড় ইউনিয়ন বিএনপির সভাপতি হালিমের আধাপাকা মার্কেটের সামনে আওয়ামী লীগ সমর্থিত ইউপি চেয়ারম্যান ও জেলা আওয়ামী লীগের প্রচার সম্পাদক নাজমুল কবিরকে মটরসাইকেল থেকে নামিয়ে মারধর করে।

চেয়ারম্যানকে মারধর করায় স্থানীয় এবং বাগেরহাট থেক আওয়ামী লীগ কর্মীরা জড়ো হয়ে ওই মার্কেটসহ স্থানীয় বিএনপি নেতা-কর্মীদের অন্তত ৭টি বাড়ি আগুন দিয়ে পুড়িয়ে দেয়।

প্রসঙ্গত, গতকাল শনিবার (১৫ মার্চ) রামপালসহ বাগেরহাটের পাঁচ উপজেলা পরিষদের নির্বাচন অনুষ্ঠিত হয়।

১৬ মার্চ ২০১৪ :: নিউজ ডেস্ক, 
বাগেরহাট ইনফো ডটকম।।
এসআই হক-নিউজরুম/বিআই/আপডেট
ইনফো ডেস্কWriter: ইনফো ডেস্ক (1855 Posts)