‘এ প্লাস’ না পাওয়ায়…

স্টাফ করেসপন্ডেন্ট | বাগেরহাট ইনফো ডটকম

এসএসসিতে ‘এ প্লাস’ না পাওয়া এক ছাত্রী কীটনাশক পানে আত্মহত্যা করেছে।

রোববার (৬ মে) সন্ধ্যায় বাগেরহাটের ফকিরহাট উপজেলার ‍শুভদিয়া গ্রামে ওই ঘটনা ঘটে।

কাঙ্ক্ষিত ফল না পেয়ে আত্মহত্যা করা ওই ছাত্রীর নাম জোবায়দা খাতুন মীম (১৬)। সে ওই গ্রামের মিজানুর রহমান শেখের মেয়ে।

চলতি বছর উপজেলার শুভদিয়া কেবি মাধ্যমিক বিদ্যালয় থেকে এসএসসি পরীক্ষায় অংশ নেয় মানবিক বিভাগের ছাত্রী জোবায়দা। রোববার দুপুরে পরীক্ষার ফলাফল প্রকাশিত হয়। এতে ‘বি’ গ্রেড পেয়ে উত্তীর্ণ হয় সে। ফলাফল জানার পর সন্ধ্যার দিকে মানসিকভাবে বিপর্যস্ত জোবায়দা কীটনাশক পান করে।

পরিবারের সদস্যরা টের পেলে দ্রুত তাকে উদ্ধার করে খুলনা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে নেওয়ার পথেই মারা যায় সে। সোমবার দুপুরে বাগেরহাট সদর হাসপাতালের মর্গে ওই শিক্ষার্থীর ময়না তদন্ত সম্পন্ন হয়েছে।

নিহতের মেঝ চাচা মো. নজরুল শেখ বাগেরহাট ইনফো ডটকমকে বলেন, তিন বোনের মধ্যে সবার ছোট ছিল সে। বাড়িতে সবাই আদর করে ওকে ডাকতো মিমমা। সবার আদুরে মিমমা পড়ালেখাও খুব ভালো ছিল। এসএসসির আগে বিদ্যালয়েরি টেস্ট পরীক্ষাতেও সে খুব ভালো ফলাফল করে। ওর প্রত্যাশা ছিল এ প্লাস পাবে।

‘ফলাফল জানার পর থেকেই মন খারাপ করেছিল সে। বাড়িতে সবাই অনেক বুঝালেও কিছুতেই সাভাবিক হচ্ছিল না। তার মা আয়সা বেগম সন্ধ্যার কিছু আগে বাড়ির আঙিনায় মুরগির খামারে গেলে বাথরুমে ডুকে দরজা আটকে কীটনাশক পান করে মীম। কিছুক্ষন বাদে তার মা ঘরে এসে মীমকে না পেয়ে বাথরুমের দরজা বন্ধ দেখতে পায়। পরে সেখান থেকে উদ্ধার করে হাসপাতালে নেওয়ার পথেই তার মৃত্যু হয়।’

ফসলের ক্ষেতে ব্যবহারের জন্য ওই কীটনাশক আগে থেকেই বাড়িতে আনা ছিল বলে জানান তিনি।

শুভদিয়া কেবি মাধ্যমিক বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক সুব্রত দাস বাগেরহাট ইনফো ডটকমকে বলেন, জোবায়দা খাতুন মীম মেধাবী ছাত্রী ছিল। এসএসসি পরীক্ষার প্রকাশিত ফলাফলে তিন পয়েন্টের উপরে পেয়ে ‘বি’ গ্রেডে উত্তীর্ণ হয় সে। তার আশা ছিল জিপিএ ৫ পাবে। সহপাঠী ও শিক্ষকদের কাছেও সে তার প্রত্যাশার কাথা বলতো। আমাদেরও ধারণা ছিল সে ভালো করবে। তবে তার আত্মহত্যার ঘটনা খুবই দু:খজন।

তিনি জানান, চলতি বছর (২০১৮ সালে) তার বিদ্যালয় থেকে মোট ৩৬ জন শিক্ষার্থী এসএসসি পরীক্ষায় অংশ নেয়। এদের মধ্যে ১৮ জন মানবিক বিভাগ থেকে এবং ৯ জন করে শিক্ষার্থী বিজ্ঞান ও ব্যবসা শিক্ষা বিভাগের। রোববার প্রকাশিত ফলাফলে ৩০ জন উত্তীর্ণ হয়েছে। যাদের মধ্যে দুজন জিপিএ ৫ পেয়েছে।

জোবায়দার মৃত্যুর ঘটনায় রোববার রাতে বাগেরহাটের ফকিরহাট থানার একটি অপমৃত্যুর মামলা হয়েছে।

মামলা তদন্ত কর্মকর্তা ফকিরহাট থানা পুলিশের উপপরিদর্শক (এসআই) মো. আবুল বাসার বাগেরহাট ইনফো ডটকমকে বলেন, পরীক্ষায় কাঙ্খিত ফল না পাওয়ায় অভিমান করে ঘরে থাকা কীটনাশক পান করে আত্মহত্যা করে ওই ছাত্রী। স্থানীয়দের মাধ্যমে খবর পেয়ে লাশ উদ্ধারের পর বাগেরহাট সদর হাসপাতাল মর্গে তার ময়না তদন্ত সম্পন্ন হয়েছে।

ময়নাতদন্ত শেষে সোমবার বিকালে ওই শিক্ষার্থীর লাশ পরিবারের কাছে হস্তান্তর করা হয়েছে।

এইচ//এসআই/বিআই/০৭ মে ২০১৮

বাগেরহাট ইনফো নিউজWriter: বাগেরহাট ইনফো নিউজ (1472 Posts)