ছিনতাই করে পালিয়ে যাবার পথে মাইক্রোবাসসহ আটক ৭

গোয়েন্দা পুলিশ পরিচয়ে ছিনতাইয়ের অভিযোগে ৭জনকে আটক করেছে পুলিশ। এ সময় তাদের ব্যবহৃত একটি মাইক্রোবাসও জব্দ করা হয়।

শনিবার বিকেল ৫টার দিকে বাগেরহাটের চিতলমারী উপজেলার স্টিল ব্রিজ এলাকা থেকে তাদের আটক করা হয়।

আটককৃতরা হলেন, মাদারীপুরের খরদি গ্রামের আব্দুর রহমানের ছেলে নুরু মিঞা, একই জেলার শিবচর উপজেলার চন্না গ্রামের লিটন হাওলাদার, বাগেরহাটের ফকিরহাট উপজেলার লখপুর গ্রামের সুলতান শেখের ছেলে আশরাফ শেখ, খুলনা মহানগরের খালিশপুর কোর্ট কলোনী জোড়াগেট এলাকার হাবিবুর রহমানের ছেলে মুরাদ জমাদ্দার, খুলনার খালিশপুরের জোড়াগেট এলাকার শামছুল হকের ছেলে সেলিম শেখ, খুলনার পাবলা এলাকার আব্দুল হকের ছেলে শমসের হক এবং ফেনীর ছাগলনাইয়া উপজেলার কৈয়াবাজার গ্রামের রহিম মোল্লার ছেলে মাইক্রোবাস চালক মানিক মোল্লা।

পুলিশ জানায়, বিকাল ৪টার দিকে বাগেরহাট-খুলনা সড়কের শ্রীঘাট নামকস্থান মাইক্রবাসে থাকা ঐ সাত জন গোয়েন্দা পুলিশের পরিচয় দিয়ে মটর সাইকেলে থাকা বাংলালিংক কোম্পানির এসআর সন্দীপের গতি রোধ করে। পরে তারা মাইক্রোবাস থেকে লাঠিসোটা হাতে নেমে মারধর করে তার কাছ থেকে নগদ টাকা, রিচার্জ কার্ড ও মোবাইল সেটসহ মালামাল ছিনতাই করে নিয়ে পালিয়ে যায় ।

বাংলালিংকের বাগেরহাটের পরিবেশক আকিব টেলিলিংকের সত্ত্বাধিকারী কামরুল আহসান সন্ধ্যায় জানান, রামপাল ও ফকিরহাট উপজেলার বিক্রয় প্রতিনিধি সন্দ্বীপ হালদার দোকানীদের সিমে ফ্লেক্সিলোড দিয়ে মটর সাইকেলযোগে বাগেরহাটে কার্যালয়ে ফিরে আসার পথে ওই সংঘবদ্ধ ছিনতাইকারীর দল ডিবি পুলিশ পরিচয় দিয়ে তার পথরোধ করে। পরে তারা সন্দ্বীপকে মারধর করে তার কাছে থাকা ব্যাগ ও একটি মোবাইলসেট নিয়ে মাইক্রোবাস যোগে বাগেরহাটের দিকে চলে যায়।

তিনি আরও জানান, কার্ড ও লোডসহ তাঁর কাছে পঞ্চাশ হাজারের উপরে নগদ টাকা ছিল। পরে তার কাছ থেকে সংবাদ পেয়ে বিষয়টি পুলিশ জানানো হয়।

চিতলমারী থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মোল্লা মনিরুজ্জামান সন্ধ্যায় বাগেরহাট ইনফোকে বলেন, বাগেরহাট থানা পুলিশের কাছ থেকে সংবাদ পেয়ে ছিনতাইকারী দলটিকে ধরতে চিতলমারী উপজেলার বিভিন্ন সড়কে চেকপোস্ট বসায় পুলিশ। বিকেল সাড়ে পাঁচটার দিকে চিতলমারী উপজেলার ষ্টিল ব্রীজের কাছে থেকে একটি সাদা মাইক্রোবাসে তল্লাসি করে গোয়েন্দা পুলিশের পরিচয় দিয়ে মোবাইলফোন কম্পানির টাকা ছিনতাইকারী মাইক্রোবাসের সাতজনকে আটক করা হয়।

এসময় এদের কাছ থেকে উদ্ধার কারা হয় ছিনতাই করা নগদ সাড়ে সতেরো হাজার টাকা।

তিনি আরও বলেন, খুলনা ও মাদারীপুরের এই চক্রটি দির্ঘ্যদিন ধরে বাগেরহাট, খুলনা ও মাদারীপুরের বিভিন্ন সড়কে ছিনতাই করে আসছে বলে তারা প্রাথমিক জিজ্ঞাসাবাদে স্বীকার করেছে তারা।

২৭ জুলাই ২০১৩ ::  প্রতিনিধি
বাগেরহাট ইনফো ডটকম।।
ইনফো ডেস্কWriter: ইনফো ডেস্ক (1855 Posts)