শরণখোলায় হরতাল সমর্থকদের ১০টি দোকান ও ১৫টি বাস ভাংচুর

???????????????????????????????বিএনপিসহ ১৮ দলীয় জোটের ৮৪ ঘন্টা হরতালের তৃতীয় দিনে বাগেরহাটের শরণখোলায় হরতাল সমর্থক দের বিক্ষোভ মিছিল থেকে ১০ টি দোকান ও ১৫টি বাস ভাংচুরের ঘটনা ঘটেছে।
মঙ্গলবার বিকেল সোয়া ৫ টায় হরতাল সমর্থনকারীরা উপজেলার রায়েন্দা বাজার ও রাজৈর বাসস্ট্যান্ডে ওই হামলা চালায়।
স্থানীয় সূত্রে জানা গেছে, এঘটনার পর ছাত্রলীগ নেতা-কর্মীরা জড় হয়ে উপজেলা বিএনপির কার্যালয় ভাংচুর করে এবং রুবেল খাঁ নামে এক ছাত্রদল কর্মীকে মারধর করে।
শরণখোলা উপজেলা বিএনপির সভাপতি খান মতিয়ার রহমান বলেন, হরতালের সমর্থনে বিকেল পাঁচটার দিকে উপজেলা বিএনপি’র উদ্যোগে শরণখোলা ডিগ্রী কলেজের সামনে থেকে একটি শান্তিপূর্ণ মিছিল বের করে।
মিছিলটি রায়েন্দা বাজার ও পাঁচ রাস্তার মোড় ঘুরে বাসস্ট্যান্ড এলাকায় পৌছলে সেখানে থাকা খোন্তাকাটা ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সভাপতি মহিউদ্দিন খান ছাত্রদলের কর্মী মো. সাদ্দামকে লাঠি দিয়ে মাথায় আঘাত করে। এই ঘটনার পর মিছিলে থাকা নেতা-কর্মীরা তখন বিক্ষুব্দ হয়ে বেশ কয়েকটি দোকান ও বাস ভাংচুর করেছে।
এসময় তিনি বাগেরহাট ইনফোকে জানান, আওয়ামী লীগের নেতা-কর্মীরা রায়েন্দা বাজারের বিএনপির কার্যালয়টি ভাংচুর করেছে এবং আমাদের সমর্থকদের রাস্তায় পেলেই মারধর করছে।
তবে শরণখোলা উপজেলা আ’লীগের সভাপতি কামাল উদ্দিন আকন অভিযোগ অস্বীকার করে বাগেরহাট ইনফোকে বলেন, বিএনপির নেতা-কর্মীরা পরিকল্পিতভাবে বাজারে লাঠিসোটা হাতে এসে মিছিল করে। ওই মিছিল থেকে তারা ফল বিক্রেতা বিকাশ, বাদল ও ডালিমের দোকানে হামলা চালায়। তাদের দোকানের সব ফল লুট করে নিয়ে যায়।
এছাড়া তারা বেশ কয়েকটি মুদি দোকানেও হামলা চালায়। যাদের উপর হামলা চালানো হয়েছে এরা কেউ সক্রিয় রাজনীতি করেনা।
তিনি অভিযোগ করেন, মিছিলটি উপজেলার বাসস্ট্যান্ডে পৌছালে সেখানে দাড়িয়ে থাকা খোন্তাকাটা ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সভাপতি মহিউদ্দিন খানের উপর চড়াও হয় হরতাল সমর্থনকারীরা। এসময় তারা মহিউদ্দিন খানের মটরসাইকেলটি ভেঙ্গে ফেলে।
শরণখোলা থানার উপপরিদর্শক (এসআই) নজরুল ইসলাম বাগেরহাট ইনফোকে হামলা ও ভাংচুরের বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন।
তিনি জানান, হরতাল সমর্থনকদের হামলায় ফল, মুদি ও কসমেটিকসসহ অন্তত ১০টি দোকান ও ঢাকাগামী পর্যটক, মেঘনাসহ অন্তত ১৫টি পরিবহণ ভাংচুরের ঘটনা ঘটেছে। তবে বর্তমানে পরিস্থিতি শান্ত রয়েছে।
এদিকে উভয় দলের মধ্যে ফের সংঘর্ষের আশংকায় এলাকায় অতিরিক্ত পুলিশ মোতায়েন করা হয়েছে।
এরিপোট লেখা (সন্ধ্যা ৭ টা ৪৫ মিনিটি) পর্যন্ত পুলিশ একজনকে আটক করেছে। বর্তমানে এলাকায় থমথমে অবস্থা বিরাজ করছে।
১২ নভেম্বর ২০১৩ :: নিউজ ডেস্ক,
বাগেরহাট ইনফো ডটকম।।
এজি/এমআই/এসআই হক-নিউজ এডিটর/বিআই
১২ নভেম্বর ২০১৩ :: নিউজ ডেস্ক,
বাগেরহাট ইনফো ডটকম।।
এসআই হক-নিউজ এডিটর/বিআই

– See more at: http://bagerhatinfo.com/news/7503/#sthash.egxowjyj.dpuf

ইনফো ডেস্কWriter: ইনফো ডেস্ক (1855 Posts)