রোদেলা সুখ (পর্ব-১)

• মাসুমা রুনা

পরী’র বাসায় নতুন এক ক্যাচাল শুরু হইছে ইদানীং। ক্যাচালের নাম ‘বিয়া’। পরীর খালা, ফুপু, চাচী, প্রতিবেশী, কুটনি, আন্টি সবাই দলে দলে নানান সাইজের নানান রঙের বিয়ার পাত্র ওর বাপ মায়ের সামনে সকাল-বিকাল তুলে ধরছে।

বিষয়টা খুবই অন্যায্য। বিয়ে-শাদিতে এই মূহুর্তে এক চিমটিও গরজ নাই পরীর। এটা তাদেরকে বলা হইছে। কিন্তু এদের সম্ভবত কাচ্চি-বিরিয়ানি খাওয়ার ধান্ধা। এছাড়া আর কোন মহৎ উদ্যেশ্য আছে বলে মনে হয় না।

মেজাজ খারাপের মাথায় পানি ঢালা দরকার। তাই এ ভর দুপুরে ওলিগলি হাটতে বের হয়েছে সে।
কত কি দেখা যায় রাস্তায়!

সরুই স্টাফ কোয়ার্টার এর রাস্তায় এই দুপুরে কয়েকটা নেড়ি কুকুর শুয়ে আছে। এদের ল্যাজ নাড়া দেখে মনে হচ্ছে ফ্যান খাইছে পেট ভরে একটু আগে। আর এখন শুয়ে শুয়ে রাস্তার পথিকের ভাবসাব দেখতেছে।

পরীর ভাব দেখে কি বুঝলো জানা গেলে ভালো হতো! ভুল করে বাসা থেকে বের হবার সময় ঘরে পড়ার চটিজোড়া পড়েই বের হয়ে এসেছে!
তাতে কি! ছিড়ে গেলেও আজ হাটতেই থাকবে সে।
ভাবতে না ভাবতেই ছিড়ে গেলো!!! রাস্তার পাশে চটিজোড়া খুলে আবার স্বাভাবিক ভঙ্গিতে হাটতে লাগলো সে।

সূর্য আজ এত উদার… সব ঝাঁঝ ঢেলে দিচ্ছে!
পাঁচ ফুটের গতানুগতিক শরীর আর হালকা পাতলা গড়ন নিয়েও এ রোদ্দুরকে তাচ্ছিল্য করার মতো যথেষ্ট শক্ত সে!
মানসিক জোর তার ছয় ফুট সমান।
একটা ও দোকান খোলা নেই। সবাই এখন যার যার ঘরে। দোকানগুলো খোলা থাকলে বেশ লাগে।

মফস্বল শহরের এসব টঙ দোকানে ইদানীংকালে ১৪” টিভি চলে। আর সামনে রাখা বেঞ্চে বসে কিছু নিশ্চিন্ত মানুষ ক্রাইম পেট্রোল দেখে। আর পুরো ঘটনাটা চলতি পথে দেখতে দেখতে পরীর এক রকম ভালোলাগা কাজ করে।

হাটতে হাটতে পায়ের তলার কিছুটা খবর হয়ে যাচ্ছে। ইটের কুচি আর তপ্ত পিচের সাথে খালি পায়ের সমঝোতা হতে একটু সময় লাগছে! তবু ভালো লাগে এই ভাবে হাটতে।

বাসায় ফিরে সবার আগ্রহের কারণ সে হতে চায় না এখন। নিজের খেয়ালে অচেনা দেয়ালে কিছু কবিতা কিছু রঙ সে ছড়াতে চায়…..

কখন যে মুনিগঞ্জ কাঠেরপোল চলে এসেছে সে জানেনা। এখানে দাড়িয়ে ভৈরব নদটা দেখা যায়।
প্রিয় নদ!! রোদ পড়ে রুপালী আলোর ঝিলিক ছড়াচ্ছে!!!
আহা!! মন ভরে যাচ্ছে……

তবু চোখের কোনা বেয়ে এক ফোটা জল গড়িয়ে পড়লো। ভালোলাগলে এ রকমভাবে এক ফোটা জল গড়ায় পরীর চোখ থেকে! দুপুর বেলাটা আজ
ভালোবেসেই ফেললো তাকে।

আর সে তো ভালোবেসেই কাছে এসেছে!!!!

(চলবে....)

এসআইএইচ/বিআই/২৭ সেপ্টেম্বর, ২০১৭

মাসুমা রুনাWriter: মাসুমা রুনা (13 Posts)