অভিমান! | মাসুমা রুনা

image-pride
মেয়ে:
তুমি কি টের পাও, কি গাঢ় অভিমানে আমি নীল হয়ে যাই, প্রতিদিন…. প্রতিরাত!!!
কতখানি সাব ধানে আজকাল দুঃখ লুকাই,
তুমি কি তা বোঝ?

আমার হাতের এক কাপ চা! কি ভীষন তৃপ্তি নিয়ে পান করো!!
তুমি কি দেখেছিলে কাপটা তোমার হাতে দেবার সময়
আমি কতটা সাবধানে একটু খানি ব্যাবধান রেখে
তোমার হাতে তুলে দিয়েছি??
যেন তোমার হাতে আমার হাতটা লেগে না যায়!
হাতের সাথে হাতের স্পর্শের যে এখন ভীষন আড়ি!
এক দীর্ঘ অভিমান!!
আজকাল তো চোখে কাজল দেই না আমি!
আয়নায় মাঝেমাঝে নিজের সাথে কথা হয়
তখন দেখেছি রাতজাগা নিরুত্তর প্রহর গুলো
সাক্ষ্য রেখে গেছে চোখের পাতায়!
কাজল আমার পড়তে হয় না আজকাল!
অভিমানী চোখের কালি কি নিদারুন ভাবে
মানিয়ে গেছে আমায়!!!

ছেলে:
হাসালে আমায়!!!
তোমার অভিমান গুলো কে একটু কি বলবে
মাঝে মাঝে আমার এ্যাশট্রে তে আড়চোখে তাকাতে!?
পড়ে থাকা ফিল্টারে সে কি শুধু ছাই দেখে?
সেখানে দিনের পর দিন, রাত এর পর রাত
না বলা কথা,না লেখা কাব্যের আত্নহত্যা
চোখে কি তার পড়ে নাই কেমন করে
বলতে গিয়েও না বলে কথা জমাই
মনের একটা গোপন খাতায়!!

মেয়ে:
তুমি বদলে গেছো ভীষন রকম!
সবই বোঝ, শুধু আজকাল আমায় বোঝো না
তুমি ভাবো সারাক্ষন ই তো হাসছি,গাইছি
তুমি এটাও ভাবো, আমাদের গোছানো সংসার
কোথাও কোন ফাকি নেই, তাই কোথাও কোন
অভিযোগ ও নেই!
আমি যে খুব বেশী পরিমানে তোমার পাশেই বসে
থাকতে চাই!
এই একটা কথা অভিমানী মন আমাকে বলতেই দেয় না!!!

ছেলে:
এত অভিমান! এত নিরবতা! কবে থেকে বাসা
বেধেছে!!?
আমাদের দুজনার কাছাকাছি নিশ্বাস,
তবু আমরা কেন গড়েছি
এই অদৃশ্য এক অর্থহীন অভিমানের সাতকাহন!!!
পাশাপাশি বসে আজ তোমায় বলতে চাই….
রাতজাগা সেসব অভিমানী প্রহরে আমি
শুধু তোমাকেই পাশে চেয়েছি!!
আজও আমি আমার হাতে
তোমার হাতের স্পর্শ কেই সবচেয়ে ভালোবাসি!!!

এসআইএইচ/বিআই/২৫ নভেম্বর, ২০১৬

মাসুমা রুনাWriter: মাসুমা রুনা (13 Posts)