সুন্দরবনের ‘সাগর বাহিনীর’ ১৩ দস্যুর আত্মসমর্পণ

স্টাফ করেসপন্ডেন্ট | বাগেরহাট ইনফো ডটকম

বৃহস্পতিবার (২০ অক্টোবর) বেলা পৌনে ১২টায় বরগুনা সার্কিট হাউজ মাঠে এক অনুষ্ঠানে র‌্যাব ও প্রশাসনের কর্মকর্তাদের উপস্থিতিতে অস্ত্রশস্ত্র জমা দিয়ে তারা আত্মসমর্পণ করেন।

এরা হলেন-সাগর বাহিনীর প্রধান মো. আলমগীর শেখ ওরফে সাগর (৩৫), কামরুল ফকির (২৭), আব্দুল মালেক (৩৮), মো. কাদের শেখ (৩৮), মো. হাফিজুর রহমান শেখ (৪৬), মো. কাবীর সরদার (৩৪), মো. দেলোয়ার শেখ (৩৮), মো. হাসান সরদার (২২), মো. নান্না ফকির (২৯), মো. তৌহিদুল ইসলাম (৪৩), মো. রাজু শেখ (২৮), মো. লিটন হাওলাদার (৩৪), মো. তারিকুল গাজী (৩২)।

তাদের সবার বাড়ি বাগেরহাটের বিভিন্ন এলাকায় বলে বলে র‌্যাব-৮-এর উপ-অধিনায়ক মেজর আদনান কবির জানান।

আত্মসমর্পণকারী সাগর বাহিনীর দস্যুরা ২০টি আগ্নেঅস্ত্র ও ৫৯৬ রাউন্ড গুলি জমা দিয়েছে।

জমা দেওয়া অস্ত্রশস্ত্রের মধ্যে রয়েছে – আটটি বিদেশি একনলা বন্দুক, তিনটি দেশি একনলা বন্দুক, একটি বিদেশি দোনলা বন্দুক, দু’টি বিদেশি পয়েন্ট টুটুবোর এয়ার রাইফেল, চারটি এলজি ও দু’টি দেশি কাটা রাইফেল।

সন্ধ্যায় র‌্যাপিড অ্যাকশন ব্যাটালিয়নের (র‌্যাব-৮) পক্ষ থেকে মামলা দায়ের পর সাগর বাহিনীর ১৩ সদস্যকে বাগেরহাটের শরণখোলা থানায় হস্তান্তর করা হয়েছে।

শরণখোলা থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মো. আব্দুল জলিল বাগেরহাট ইনফো ডটকমকে বলেন, বুধবার (১৯ অক্টোবর) সন্ধ্যায় সুন্দরবন পূর্ব বন বিভাগের শরণখোলা রেঞ্জের দরজার খাল সংলগ্ন গহীন বনে সাগর বাহিনীর সদস্যরা আত্মসমর্পণের জন্য র‌্যাব-৮ এর হেফাজতে আসেন। পরে বরগুনায় স্বরাষ্ট্রমন্ত্রীর কাছে আনুষ্ঠানিক ভাবে আত্মসমর্পণ করে।

‘বৃহস্পতিবার সন্ধ্যায় র‌্যাব-৮ এর উপ-সহকারী পরিচালক (ডিএডি) বিদ্যুৎ কুমার রায় বাদী হয়ে শরণখোলা থানায় অস্ত্র ও বিস্ফোরক দ্রব্য আইনে একটি মামলা দায়ের করে জমা দেওয়া অস্ত্রশস্ত্রসহ দস্যুদের থানায় হস্তান্তর করেছে।’

শুক্রবার তাদের আদালতের মাধ্যমে বাগেরহাট করাগারে পাঠানো হবে বলে জানান তিনি।

এনিয়ে গত চার মাসে সুন্দরবনের ‘মাস্টার বাহিনী, মজনু বাহিনী ও ইলিয়াস বাহিনীর ৩৪ দস্যু স্বাভাবিক জীবনে ফিরতে র্যাবের মাধ্যমে আত্মসমর্পণ করলো।

এইচ/এসআই/বিআই/২০ অক্টোবর, ২০১৬

বাগেরহাট ইনফো নিউজWriter: বাগেরহাট ইনফো নিউজ (1301 Posts)