প্রচ্ছদ / শেকড়ের সন্ধানে / যেভাবে বাগেরহাট নামকরণ

যেভাবে বাগেরহাট নামকরণ

Write-Image… | বাগেরহাট ইনফো ডটকম

naming-bagerhatখ্রীষ্টিয় চৌদ্দ শতকে সুলতানী আমলে আজকের বাগেরহাট ছিলো খলিফাতাবাদের রাজধানী।

‘খান-উল-আযম উলুঘ খান-ই-জাহান’ গৌড়ের সুলতানদের প্রতিনিধি হিসেবে বর্তমান যশোর, খুলনা ও বাগেরহাটের বড় একটি এলাকা নিয়ে গঠিত এই খলিফাতাবাদ শাসন করতেন। সমসাময়িক সময়ের পর্তুগীজদের তৈরি এই অঞ্চলের মানচিত্রে ‘কিউপিটাভাজ’ নামে যে নগর রাষ্ট্রের উপস্থিতি আছে সেটিকেই ঐতিহাসিকেরা খান জাহানের ‘খলিফাতাবাদ’ বলে স্থির করেছেন।

ইতিহাস বলে শহর বাগেরহাট এর নামকরণ আরও পরের। তবে সেটা ঠিক কতটা পরে বা কিভাবে, সে বিষয়ে বিস্তারিত ও সুনির্দিষ্ট তথ্যের সংকট রয়েছে।

শেকড়ের সন্ধানে

অনেকের মতে, মুঘল আমলে বাখরগঞ্জের প্রতিষ্ঠাতা (বরিশালের শাসক) ‘আগা বাকেরে’র নামানুসারে এই স্থানের বা হাটের নামকরণ করা হয়েছিল বাকেরহাট। কালক্রমে তা বাগেরহাট-এ পরিণত হয়।

আবার অনেকের মতে পাঠান জায়গীরদার বাকির খাঁর নাম থেকে বাগেরহাট। তবে এসব ক্ষেত্রে উপযুক্ত যুক্তির সংকটও রয়েছে।

অনেকের মতে, প্রাচীণ কালে বর্তমান বাগেরহাট ছিলো সুন্দরবনের অংশ। তখন এখানকার কোন লোকালয়ে বাঘের উপদ্রব ছিলো। আর সেজন্যই হয়তো কোন রসিক ব্যক্তি এই স্থানকে ‘বাঘের হাট’ বলে নাম দিয়েছিলেন। বাঘের সেই হাটের অপভ্রংশ রূপই আজকের বাগেরহাট।

বাগেরহাট পরিচিতি

অপর একটি মতে, বাগেরহাট শহরের পাশ দিয়ে প্রবাহিত ভৈরব নদে শহরের মুনিগঞ্জ থেকে নাগেরবাজার পর্যন্ত একটি বাঁক রয়েছে। এই বাঁকের পাশে শহরের বর্তমান পুরাতন বাজার এলাকায় একটি হাট বসতো। নদীর বাঁকের সেই হাট থেকেই শহর বাগেরহাটের নামকরণ।

প্রসঙ্গত বর্তমান বাগেরহাট বাজার স্থানান্তরিত হবার আগে পুরাতন বাজারই ছিলো বাগেরহাটের প্রধান বাজার। অনেকেই এই মতটি সমর্থন করেন।

তবে বাগেরহাট নামকরণের সব থেকে যুক্তিসংগত মতটি এসেছে, ‘বাগ’ এর ‘হাট’ থেকে। ফার্সি ‘বাগ’ শব্দের অর্থ বাগান বা বাগিচা। সতীশ চন্দ্র মিত্রের যশোহর-খুলনার ইতিহাস বই থেকে জানা যায়, হযরত খান জাহানের অন্যতম স্থাপনা (বড় আজিনা) ‘বড় আজনে’ সংলগ্ন বর্তমান বাগেরহাট শহর এলাকায় খান জাহানের বাগ বা বাগান ছিলো। সেই বাগ এলাকায় বসা হাট থেকে বাগেরহাট নামকরণ হয়েছে বলে মনে করা হয়।

 কৃষ্টি ও সংস্কৃতি

এসব সূত্রগুলোর কোনটি সঠিক সে বিষয়ে পরিপূর্ণ গবেষণা হয়েছে বলে জানা যায় না। ফলে বাগেরহাট নামকরণ নিয়ে কিছুটা বিভ্রান্তি রয়েই গেছে। এ বিষয়ে আরও কাজ হবার সুযোগ রয়েছে।



এএইচ/এসআইএইচ/বিআই/১২ সেপ্টেম্বর, ২০১৬
** বাগেরহাটের দর্শনীয় স্থান

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

4 + 16 =

 

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.