সুন্দরবনে বিদেশি পর্যটকদের ড্রোন জব্দ

স্টাফ করেসপন্ডেন্ট | বাগেরহাট ইনফো ডটকম

সুন্দরবনে ঘুরতে আসা বিদেশি পর্যটকদের কাছ থেকে একটি ড্রোন জব্দ করেছে বন বিভাগ। ওই পর্যটকেরা মাল্টা থেকে এসেছিল।

তবে মাল্টার থেকে আসা ১২ পর্যটকের কাউকে আটক করেনি সুন্দরবন পূর্ব বন বিভাগ।

সুন্দরবন পূর্ব বন বিভাগের বিভাগীয় বন কর্মকর্তা (ডিএফও) মো. মাহমুদুল হাসান চৌধুরী জানান, সুন্দরবনের শরণখোলা রেঞ্জের দুবলারচরের আলোরকোল এলাকা থেকে মঙ্গলবার দুপুরে ড্রোনটি জব্দ করা হয়।

এ ঘটনায় কাউকে আটক করা না হলেও ‘মাবানা ট্যুরস লিমিটেড’ নামের যে কোম্পানি ওই বিদেশি পর্যটকদের বেড়াতে নিয়ে এসেছিল, তার মালিক মো. নান্টুর বিরুদ্ধে মামলা করেছে বনবিভাগ।

বন কর্মকর্তা মাহমুদুল বলেন, মাবানা ট্যুরস কর্তৃপক্ষ গত ৪ ডিসেম্বর বনবিভাগের অনুমতি নিয়ে তিন দিনের জন্য মাল্টার ১২ পর্যটককে নিয়ে সুন্দরবনে আসে। ৫ ডিসেম্বর তারা শরণখোলা রেঞ্জের দুবলার চরের আলোরকোল এলাকায় ড্রোনটি ওড়ায়।

‘ড্রোন উড়তে দেখে দুবলা স্টেশনের বনপ্রহরীরা গিয়ে সেটি নামিয়ে তা জব্দ করে। পরে ওই পর্যটকদের নিয়ে সুন্দরবন থেকে বেরিয়ে যেতে এবং ভবিষ্যতে এ ধরনের আইনবিরোধী কর্মকাণ্ড থেকে বিরত থাকতে মাবানা ট্যুরসকে নির্দেশনা দেওয়া হয়।’ওই ড্রোনে সুন্দরবনের কোন কোন এলাকার চিত্রধারণ করেছে তা পরীক্ষা করে দেখা হচ্ছে বলে জানান বন কর্মকর্তা মাহমুদুল।

তিনি বলেন, মাবানা ট্যুরস লিমিটেড সুন্দরবনে বিদেশিদের নিয়ে প্রবেশের সময় ড্রোন আনার বিষয়টি গোপন করে আইন লঙ্ঘন করেছে।

‘তথ্য গোপনের অভিযোগে সুন্দরবন পূর্ব বিভাগের চাঁদপাই রেঞ্জের ওসি হাওলাদার আজাদ কবির বাদী হয়ে মাবানা ট্যুরস লিমিটেডের বিরুদ্ধে বন আইনে একটি মামলা করেছেন।’

এ বিষয়ে মাবানা ট্যুরস লিমিটেডের মালিক মো. নান্টু বলেন, চট্রগ্রামের দিদার ইকো ট্যুরস নামের একটি প্রতিষ্ঠানের মাধ্যমে বিদেশি পর্যটকদের সুন্দরবনে পাঠানোর চুক্তি হয়। বনবিভাগের আইন মেনেই তাদের সুন্দরবনে পাঠানো হয়েছে।

তিনি আরও বলেন, ‘পর্যটকদের কাছে একাধিকবার জিজ্ঞাসা করা হয়েছে তাদের কাছে নিষিদ্ধ কিছু আছে কি না। তাদের গাইডকেও জিজ্ঞাসা করা হয়েছে। তারা বলেছেন তাদের কাছে নরমাল ক্যামেরা ছাড়া কিছু নেই। বনবিভাগের হাতে ধরা পড়ার পর বিষয়টি শুনেছি। ব্যাগে করে গোপনে তারা ড্রোনটি নিয়েছে।’

বুধবার (৬ ডিসেম্বর) দুপুরে ওই ১২ বিদেশি নাগরিক সুন্দরবন ত্যাগ করেছে বলে তিনি জানান।

প্রসঙ্গত, এর আগে ২০১৬ সালের ৩১ জানুয়ারি সুন্দরবনের কটকা এলাকায় উড্ডয়নের সময় একটি ড্রোন জব্দ করা হয়। ফ্রান্সের কয়েকজন নাগরিক সুন্দরবন ভ্রমণে গিয়ে ড্রোন উড্ডয়নের মাধ্যমে টিভি চিত্র নির্মাণের জন্য ছবি ধারণ করার সময় বন বিভাগ ড্রোনটি জব্দ করে এবং বিদেশিদের ছেড়ে দেয়। 

ওই ড্রোনটি এখন সুন্দরবন বিভাগের কাছে রয়েছে। গত বছর জব্দ করা ওই ড্রোনটির বিষয়ে এখনো কোনো সিদ্ধান্ত হয়নি বলে বন বিভাগ জানিয়েছে।

এইচ//এসআই/বিআই/০৪ ডিসেম্বর, ২০১৭

বাগেরহাট ইনফো নিউজWriter: বাগেরহাট ইনফো নিউজ (1319 Posts)