বাগেরহাটে মিডওয়াইফ পরিচিতি সভা

Bagerhat-Pic-1(29-02-2016)শিশু ও মাতৃমৃত্যু রোধে বাগেরহাটে কাজ শুরু করা প্রসব সহায়তাকারী বা মিডওয়াইফদের পরিচিতিমূলক সভা অনুষ্ঠিত হয়েছে।

সোমবার (২৯ ফেব্রুয়ারি) সকালে বাগেরহাট সদর উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ব্র্যাক ইউনিভার্সিটি এবং ব্র্যাকের স্বাস্থ্য, পুষ্টি ও জনসংখ্যা কর্মসূচী এ সভার আয়োজন করে।

সভায় ব্র্যাক ইউনিভার্সিটির অধিনে ডেভলপিং মিডওয়াইফস প্রজেক্টের আওতায় ৩ বছর মেয়াদী মিডওয়াইফারি কোর্স সমাপ্ত করে বাগেরহাটে কাজ শুরু করা মিডওয়াইফদের সাথে পরিচয় করিয়ে দেওয়া হয়।

বাগেরহট সদর উপজেলা স্বাস্থ্য ও পরিবার পরিকল্পনা কর্মকর্তা (ভারপ্রাপ্ত) ডা. শহীন সুলতানা জামানের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি ছিলেন সদর উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা (ইউএনও) শরিফ নজরুল ইসলাম।

অনুষ্ঠানে অন্যানের মধ্যে বক্ত্য দেন- স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের সহকারী পরিচালক (ওএসডি) ডা. বিদ্যুৎ কান্তি পাল, সদর উপজেলা পরিবার পরিকল্পনা কর্মকর্তা ডা. অনিল কুমার কুন্ডু, ব্র্যাক বিশ্ববিদ্যালয়ের ডিরেক্টর অব মিডওয়াফেরি এডুকেশন ডা. পাণডোরা টি. হার্টম্যান, ডিপ্লোমা মিডওয়াইফারী কোর্স কো-আর্ডিনেটর শারমিন সুলতানা, ফ্যাকালটি রোকেয়া আক্তার বৃষ্টি, ডিএফআইডির ডেপুটি প্রোগ্রাম ম্যানেজার (হেলথ) মেরিলিন মৃধাল প্রমুখ।

অনুষ্ঠানে জানানো হয়, মিডওয়াইফ হলেন এমন একজন দক্ষ ও শিক্ষিত সেবিকা, যিনি মা ও শিশুকে নিবিড়ভাবে সেবা দেবেন এবং যদি কখনো কোনো ধরনের জটিলতা হয়, সেটা বুঝতে পারবেন এবং প্রাথমিক সেবা দিয়ে সঠিক সময়ে সঠিক স্বাস্থ্যকেন্দ্রে পাঠিয়ে দেবেন। মা ও শিশুর সেবা ছাড়াও নারীর প্রজনন স্বাস্থ্যসেবা, নারী ও শিশুর পুষ্টি, পরিবার পরিকল্পনা পদ্ধতি গ্রহণে সহায়তা করবেন। সব মিলিয়ে মিডওয়াইফ নিজেকে গর্ভবতী মায়ের পাশে সবচেয়ে নিকটতম বন্ধু হিসেবে থাকবেন।

একজন মিডওয়াইফ গর্ভবতী মায়েদের বাসায় ও স্বাস্থ্যকেন্দ্রে উভয় স্থানেই তাঁর কর্মক্ষেত্র হিসেবে বিচরণ করেন। মিডওয়াইফরা মহিলাদের গর্ভকালীন থেকে প্রসব ও প্রসবোত্তর সময়ের জন্য বিজ্ঞান ভিত্তিক সেবা দিয়ে নিরাপদ মাতৃত্ব ও নবজাতকের স্বাস্থ্যসেবা প্রদান করে।

অনুষ্ঠানে অতিথিরা বলেন, প্রতিটি শিশুর জন্মের সময় ভালো প্রসব সহায়তাকারী বা মিডওয়াইফ খুবই প্রয়োজন। শিশু ও মাতৃমৃত্যু রোধে এবং নারীদের স্বাস্থ্য উন্নয়নে মিডওয়াইফরা কার্যকর অবদান রাখতে পারেন।

জাতিসংঘ জনসংখ্যা তহবিলের (ইউএনএফপিএ) এক প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, বাংলাদেশে প্রতিবছর প্রায় ৩২ লাখ শিশু জন্মগ্রহণ করে। এ ছাড়া কিশোরী অবস্থা থেকে নারীদের প্রজনন বয়ঃসীমার শেষ প্রান্ত পর্যন্ত সব নারীকে সেবা দেওয়ার জন্য দেশে আনুমানিক ২০ হাজার দক্ষ ও প্রশিক্ষিত মিডওয়াইফের প্রয়োজন।

ব্র্যাক ইউনিভার্সিটির অধীনে বেসরকারি পর্যায়ে দেশে প্রথম মিডওয়াইফারী শিক্ষার উদ্যোগ গ্রহণ করা হয়। দেশের প্রত্যন্ত এলাকা যেখানে মাতৃ ও শিশু মৃত্যুর হার অনেক বেশি সেখান থেকে এইচএসসি পাস মেয়েরা প্রতিযোগিতামূলক পরীক্ষার মাধ্যমে ভর্তি হয়ে এই শিক্ষা গ্রহণ করছে। জাতীয় ও আন্তর্জাতিক মানসম্পন্ন কারিকুলাম অনুযায়ী এই শিক্ষা প্রদান করা হয়ে থাকে।

২৯ ফেব্রুয়ারি :: স্টাফ করেসপন্ডেন্ট,
বাগেরহাট ইনফো ডটকম।।
এস/আইএইচ/এনআরএ/বিআই
বাগেরহাট ইনফো নিউজWriter: বাগেরহাট ইনফো নিউজ (1265 Posts)