সুন্দরবনে মহিষ চরানোয় মালিকের অর্থ দণ্ড

শরণখোলা উপজেলার নির্বাহী কর্মকর্তা (ইউএনও) মো. অতুল মণ্ডল বুধবার (২০ এপ্রিল) দুপুরে ভ্রাম্যমাণ আদালত বসিয়ে বন আইনে এ জরিমানা করেন।

অর্থ দন্ড পাওয়া বাগেরহাটের মোরেলগঞ্জ উপজেলার পিসি বারইখালী গ্রামের সোহেল ফরাজী তার ২০টি মহিষ নিয়ে  সকালে সুন্দরবনের অভ্যন্তরে ঘাস খাওয়াতে গেছিলেন।

সুন্দরবন পূর্ব বিভাগের চাঁদপাই রেঞ্জের ধানসাগর স্টেশন কর্মকর্তা সুলতান মাহমুদ টিটু জানান, অবৈধ ভাবে বনের ধানসাগর এলাকায় প্রবেশ করে মহিষকে কাঁচা ঘাস খাওয়াচ্ছিলেন তিনি। এ সময় বনকর্মীরা তাকে মহিষসহ আটক করে।

পরে ভ্রাম্যমাণ আদালত তাকে সংরক্ষিত বনে মহিষ (গবাদি পশু) চরানোর দায়ে বন আইন ১৮৭১ সালের ১১ ধারায় প্রতিটি মহিষের জন্য ২শ’ টাকা করে মোট ৪ হাজার টাকা জরিমানা করেন।

তৃতীয় দফায় (১৮ এপ্রিল) সুন্দরবনের নাংলি ফরেস্ট ক্যাম্প এলাকায় দুর্বৃত্তরা আগুন দেওয়ার পর সুন্দরবনে সাধারণ মানুষের প্রবেশের ওপর কড়াকড়ি আরোপ করেছে বন বিভাগ।

সুন্দরবনে আগুন দেওয়ার পর ওই এলাকায় পাহারা জোরদারের পাশাপাশি বনের প্রবেশ রোধে ৫টি ‘ফায়ার ওয়াচ টিম’গঠন করা হয়। এছাড়া শীঘ্রই ‘স্মার্ট পেট্রলিং টিম’ কাজ শুরু করবে বলে বন বিভাগ সূত্রে জানা গেছে।

বাগেরহাট ইনফো নিউজWriter: বাগেরহাট ইনফো নিউজ (1265 Posts)