ছবি এঁকে বিশ্বজয়

অলীপ ঘটক, কচিকাঁচা ডেস্ক | বাগেরহাট ইনফো ডটকম

Bornaly-Photoছবি এঁকে দেশের জন্য অনন্য এক গৌরব বয়ে এনেছে বাগেরহাটের প্রত্যন্ত গ্রামের শিশু শিক্ষার্থী বর্ণালী বাগচী।

বিশ্ব খাদ্য কর্মসূচি (ডব্লিউএফপি) আয়োজিত চিত্রাঙ্কন প্রতিযোগিতায় ‘গ্লোবাল আর্ট চ্যাম্পিয়ন অ্যাওয়ার্ড ২০১৬’ পুরস্কার পেয়েছে জেলার ফকিরহাট উপজেলার কলকলিয়া সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের চতুর্থ শ্রেণির ছাত্রী বর্ণালী।

২০১৪ সাল থেকে ডব্লিউএফপি বিশ্বের দারিদ্র্যপীড়িত বিভিন্ন দেশের শিশুদের নিয়ে এই প্রতিযোগিতার আয়োজন করে আসছে।

চলতি বছরে বিশ্বের ১৪টি দেশের সেরা পাঁচটি করে ছবি স্থান পায় এই প্রতিযোগিতায়। ১৪টি দেশের সেরা ৭০টি ছবির মধ্যে আটটি চ্যাম্পিয়ন হয়। এর মধ্যেই একটি ছবি বর্ণালীর আঁকা।

Bornaly-Drowingবাগেরহাট জেলা সদর থেকে প্রায় ২৫ কিলোমিটার দূরে ফকিরহাট উপজেলার মুলঘর ইউনিয়নের মায়ারখালী গ্রামের বিকাশ বাগচীর মেয়ে বর্ণালী।

মা বাবার পাশাপাশি বর্ণালীর এই অর্জনে খুশি সহপাঠি, শিক্ষক ও এলাকাবাসীরা।

বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক হিরামন মন্ডল বলেন, “নিজের আগ্রহ থেকে সে এই প্রতিযোগিতায় অংশ নিয়েছিল। স্কুলের শিক্ষকরা বর্ণালীর এই বিজয়ে গর্বিত। বর্ণালী শুধু স্কুলের গর্ব না সে দেশের গর্ব।”

বর্ণালীর এক সহপাঠী বলে, “গ্রামে থেকেও যে আমরা পিছিয়ে নেই বর্ণালী সেটাই প্রমাণ করল।”

আন্তর্জাতিক এ পুরস্কার পাওয়া বর্ণালী বড় হয়ে চিত্রশিল্পী হতে চায়।

Bornaly-Photo-2বর্ণালীর মা বলেন, “আমার মেয়ের অর্জনে আমরা খুব খুশি।”

বুধবার কলকলিয়া বর্ণালীর হাতে একশ ডলার সমপরিমাণ পুরস্কার ও সনদপত্র তুলে দেন ডব্লিউএফপি ও শিক্ষা কর্মকর্তারা। পরে তারা বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষকের হাতে আরও দুশো ডলারের সমপরিমাণের অর্থ তুলে দেন বলে জানান, জেলা শিক্ষা কর্মকর্তা অশোক কুমার সমাদ্দার।

শিক্ষার্থীরা যাতে পড়ালেখার পাশাপাশি এই ধরনের প্রতিযোগিতায় অংশ নিতে পারে সেজন্য মা বাবার প্রতি আহ্বান জানান তিনি।

এজি/এসআই/বিআই/০২ অক্টোবর, ২০১৬

Writer: আমাদের কথা (9 Posts)

প্রতিটি প্রাপ্ত বয়স্ক মানুষের মত শিশুদেরও আছে আলাদা দৃষ্টিভঙ্গি, কল্পনার আর ভাবনার জগত। তাদেরও বলবার আছে। তাদেরও কিছু ভাবনা আছে এই সমাজ, দেশ কিম্বা বিশ্বকে নিয়ে। তাই শিশুদের নিয়ে শিশুদের কথা বলতে আমাদের আয়োজন ‘আমাদের কথা’। এখন থেকে তোমাদের সাংবাদিকতা; তোমাদের লেখা গল্প, কবিতা, অধিকার আদায়ে বিষয় তুলে ধরবে ‘আমাদের কথা’।