ফকিরহাটে ইউপি উপ-নির্বাচনে শিরিনা আক্তার বেসরকারীভাবে বিজয়ী

বাগেরহাটের ফকিরহাট উপজেলার ৪নং সদর ইউনিয়নে চেয়ারম্যান পদে উপ-নির্বাচনে নিহত চেয়ারম্যান খান জাহিদ হাসানের স্ত্রী শিরিনা আক্তার আনারস প্রতীক নিয়ে বেসরকারীভাবে বিজয়ী হয়েছেন।

Fokirhat-upউপজেলা নির্বাচন অফিসসহ সংশ্লিষ্ট বিভিন্ন সূত্রে পাওয়া তথ্য অনুযায়ী তিনি তার নিকটতম প্রার্থী শেখ হারুন অর রশিদকে (তালা) দুই হাজার ৫৮৯ ভোটে পরাজিত করেছেন। কঠোর নিরাপত্তার মধ্য দিয়ে সকাল ৮টা থেকে বিকাল ৪টা প্রর্যন্ত শান্তিপূর্ণভাবে চলে ভোট গ্রহন।

ফকিরহাট উপজেলা নির্বাচন কর্মকর্তা ও উপ-নির্বাচনের রিটার্নিং কর্মকর্তা আব্দুস সাত্তার শনিবার সন্ধ্যায় জানান, বেসরকারী ফলাফল অনুযায়ী নির্বাচনে প্রধান চার প্রতিদ্বন্দ্বির মধ্যে শিরিনা আক্তার (আনারস) পেয়েছেন সাত হাজার তিন ভোট। শেখ হারুন অর রশিদ (তালা) পেয়েছেন চার হাজার ৪১৪ ভোট, মো: মোফাজ্জেল হায়দার (দোয়াত কলম) পেয়েছেন এক হাজার ৮৪৬ ভোট এবং মুশফিকুজ্জামান রিপন পেয়েছেন ৩৯১ ভোট।

সরেজমিন নির্বাচনী এলাকার বিভিন্ন কেন্দ্র পরিদর্শন করে দেখা যায়, সকালের ভাগে পুরুষ ভোটারদের থেকে নারী ভোটারদের উপস্থিতি ছিলো বেশী। দুপুরের পর ভোটারদের চাপ বাড়তে থাকে। নির্বাচনী পরিবেশ ছিলো খুবই শান্তিপূর্ণ। আইন শৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনীর নিরাপত্তা ব্যবস্থা ছিলো চোখে পড়ার মত কঠোর।

পাইকপাড়া সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয় কেন্দ্রে ভোট দিয়ে ফেরার পথে পাইকপাড়া গ্রামের ইয়াসমিন আক্তার নামে এক ভোটার জানান, তিনি নির্বিঘেœ ভোটকেন্দ্রে এসে ভোট দিয়ে ফিরে যাচ্ছেন। নির্বাচনের আগে বা নির্বাচনকালীণ সময়ে তার জানা মতে কোথাও কোন ধরণের প্রভাব খাটানোর চেষ্টা করেননি কোন প্রার্থী বা তার সমর্থকরা। একই কথা জানিয়েছেন ঐ কেন্দ্রে ভোট দিতে আসা হোগলডাঙ্গা গ্রামের ঝর্ণা সরকারও একই কথা বলেন।

বাগেরহাটের পুলিশ সুপার মো: নিজামুল হক মোল্লা জানান, কোন অপ্রীতিকর ঘটনা ছাড়াই সুষ্ঠু পরিবেশে শেষ হয়েছে চেয়ারম্যান পদে উপ নির্বাচন। নির্বাচন পরবর্তি সময়ে যাতে কোন ধরণের অনাকাঙ্খিত পরিস্থিতি সৃষ্টি না হয় সেদিকে পুলিশের বিশেষ দৃষ্টি রয়েছে।

উল্লেখ, গত ১৮ মে চেয়ারম্যান খান জাহিদ হাসান সন্ত্রাসীদের গুলিতে নিহত হলে আসনটি শূণ্য হয়েছিলো।

৩ আগষ্ট ২০১৩ :: ইনজামামুল হক, নিউজ করেসপন্ডেন্ট,
বাগেরহাট ইনফো ডটকম
ইনফো ডেস্কWriter: ইনফো ডেস্ক (1855 Posts)