বাগেরহাটে আওয়ামীলীগ ও বিএনপি’র মধ্যে সংঘর্ষ-গোলাগুলি, উভয়পক্ষের অফিস ভাংচুর

bagerhat10-8-13-001

বাগেরহাট সদর উপজেলার মুক্ষাইট বাজার এলায় শনিবার বিকলে বিএনপি ও আওয়ামীলীগের সভা থেকে সংঘর্ষের ঘটনা ঘটেছে।

সভা থেকে বিক্ষুদ্ধ আওয়ামীলীগ ও বিএনপির নেতা-কর্মীদের মধ্যে ব্যপক সংঘর্ষ ছড়িয়ে পড়ে।

এ সময়ে বিক্ষুদ্ধরা উভয় দলের অফিস ভাংচুর করে। পরে বিএনপির অফিসের সামনে রাখা নেতা-কর্মীদের ব্যবহৃত ১০টি মটর সাইকেল ভাংচুর ও অগ্নিসংযোগ করা হয়। এ সময়ে সংঘর্ষ ছড়িয়ে পড়লে এক পর্যয়ে উভয় গ্রুপের মধ্যে গোলাগুলি শুরু হয়।

খবর পেয়ে বাগেরহাট থেকে অতিরিক্ত পুলিশ গিয়ে সংঘর্ষ নিয়ন্ত্রন করে। এক পর্যায়ে আওয়ামীলীগের বিক্ষুদ্ধ নেতা-কর্মীরা বিএনপি অফিসে অগ্নিসংযোগ করে। সংঘর্ষে পুলিশসহ উভয় গ্রপের কমপক্ষে ১৫ নেতা-কর্মী আহত হয়েছে।

এসময়ে পুলিশ স্থানীয় শ্রমিক দল নেতা জাকির হোসেন এবং ওয়ার্ড বিএনপি নেতা মনিরুল ইসলামকে আটক করে।

আহতরা হলো, এসআই কামরুল ইসলাম (৩৮), মো. সিদ্দিকুর রহমান (৪০), আব্দুর রাজ্জাক (২৮), হোসেন আলী (৩৫), আনোয়ারুল হক (৩০)সহ আওয়ামীলীগ ও বিএনপির ১৫ নেতা-কর্মী আহত হয়। আহতদের বাগেরহাট সদর হাসপাতাল, খুলনা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালসহ স্থানীয় বিভিন্ন ক্লিনিকে ভর্তি করা হয়েছে।

bagerhat10-8-13-002

বাগেরহাটের অতিরিক্ত পুলিশ সুপার পংঙ্কজ চন্দ্র রায় বাগেরহাট ইনফোকে জানান, বিকেলে সংঘর্ষের খবর পেয়ে সেখানে অতিরিক্ত পুলিশ প্রেরন করা হয়। পুলিশ সংঘর্ষ নিয়ন্ত্রনে নিয়েছে। এ সময়ে ২ জনকে আটক করা হয়েছে।

স্থানীয় গোটাপাড়া ইউনিয়ন আওয়ামীলীগের সাধারণ সম্পাদক আব্দর রহমান হাওলাদার সন্ধায় বাগেরহাট ইনফোকে জানান, মুক্ষাইট মোড়ে ১৫ আগষ্ট উপলক্ষ্যে তাদের প্রস্তুতি সভা চলছিল। এই সভায় বাগেরহাট সদর (বাগেরহাট- ২) আসনের সংসদ সদস্য মীর শওকাত আলী বাদশাসহ অন্যান্য নেতৃবৃন্দ উপস্থিত থাকার কথা ছিল। এই সভা চলাকালে বিএনপির লোকজন তাদের উপর হামলা, প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা ও বঙ্গবন্ধুর ছবি এবং অফিসের আসবাবপত্রসহ অফিস ভাংচুর করে।

এদিকে আওয়ামীলীগ অফিসে ভাংচুরের ঘটনায় রাতে বাগেরহাট সদর আসনের সংসদ সদস্য মীর শওকাত আলী বাদশা অফিস পরিদর্শনে গিয়ে নেতা-কর্মীদের শান্তনা দেন। এ সময়ে তিনি বাগেরহাট মডেল থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তার অপসারণ দাবী করেন।

অপরদিকে বাগেরহাট জেলা বিএনপি’র সাংগঠনিক সম্পাদক মোজাফ্ফর রহমান আলম বাগেরহাট ইনফোকে জানান, মুক্ষাইট মোড়ে স্থানীয় বিএনপির অফিস উদ্বোধন উপলক্ষ্যে শনিবার বিকালে একটি সভা চলছিল। এই সভা চলাকালে আওয়ামীলীগের লোকজন তাদের উপর হামালা ও অফিসের সামনে রাখা মটর সাইকেল ভাংচুর ও অগ্নিসংযোগ করে। পরে তারা বিএনপি অফিসে অগ্নিসংযোগ করে। এতে বিএনপির অফিস ও দোতলায় থাকা কৃষি ব্যাংক ক্ষতিগ্রস্থ হয়।

এদিকে ঘটনার পর আবারও নতুন করে সংঘর্ষে আসংকায় এলাকায় অতিরিক্ত পুলিশ মোতায়েন কারা হয়েছে।

১০ আগষ্ট ২০১৩ :: ইনজামামুল হকনিউজ করেসপন্ডেন্ট,
বাগেরহাট ইনফো ডটকম
ইনফো ডেস্কWriter: ইনফো ডেস্ক (1855 Posts)