গাড়ি ভাংচুরের ঘটনায় আটক শিবির কর্মীদের নামে মামলা দায়ের

জামায়াতের ডাকা হরতালের দ্বিতীয় দিন সকালে বাগেরহাটে গাড়ি ভাংচুরের ঘটনায় আটক শিবির কর্মীদের নামে দ্রুত বিচার আইনে মামলা দায়ের করা হয়েছে।
ভাংচুর কৃত বনফুল পরিবহন গাড়ীর মালিক খুলনার নিরালা এলাকার সেখ মতলেব হোসেনের ছেলে সেখ মঈনুল ইসলাম মোহন বাদী হয়ে বৃহষ্পতিবার বিকেলে এই মামলা দায়ের করে।
মামলা বুহস্পতিবার সকালে আটক ৭ শিবির কর্মীসহ ৫ বিএনপি-জামায়াতের নেতা-কর্মীর নাম উল্লেখসহ অজ্ঞাত ২০/২৫ জনকে আসামী করা হয়েছে।
মামলায় বৃহষ্পতিবার সকালে আটক ৮ শিবির কর্মীর মধ্যে ৭ জনকে অভিযুক্ত করা হয়েছে। আটক বাকী এক শিবির কর্মী ফতেপুর এলাকার আলোক পালের ছেলে সুজন কুমার পালকে ছেড়ে দেওয়া হয়েছে।
বাগেরহাট মডেল থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) এরশাদুল কবির চৌধরী বাগেরহাট ইনফোকে জানান, আটকৃত শিবির কর্মীদের মধ্যে ৭ জনসহ মোট ১২ জনের নাম উল্লেখ করে ভাংচুরকৃত গাড়ীর মালিক থানায় মামলা দায়ের করেছে।
আটকৃতদের এদিন সন্ধ্যায় আদালতের মাধ্যমে কারাগারে প্রেরন করা হয়।
উল্লেখ্য, বৃহষ্পতিবার সকালে জামায়াতের ডাকা হরতালের দ্বিতীয় দিন শহরতলীর খানকা শরীফ এলাকায় বনফুল পরিবহনের একটি গাড়ী ভাংচুর করে শিবিরের পিকেটারা।

১৯ সেপ্টেম্বর ২০১৩ :: নিউজ ডেস্ক,
বাগেরহাট ইনফো ডটকম।।

এসআইএইচ-নিউজ এডিটর/বিআই

ইনফো ডেস্কWriter: ইনফো ডেস্ক (1855 Posts)