শরণখোলায় ভাইস চেয়ারম্যান প্রার্থী গ্রেপ্তার

বাগেরহাটের শরণখোলায় হাসানুজ্জামান পারভেজ নামে উপজেলা পরিষদ নির্বাচনের এক ভাইস চেয়ারম্যান প্রার্থীকে গ্রেপ্তার করেছে পুলিশ।

Saronkholaগ্রেপ্তারকৃত হাসানুজ্জামান পারভেজ উপজেলার সাউথখালী ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ও উপজেলা নির্বাচনে ভাইস চেয়ারম্যান প্রার্থী।

রোববার দুপুরে উপজেলার চালিতাবুনিয়া এলাকায় গণসংযোগকালে পুলিশ তাকে গ্রেপ্তার করে সরাসরি বাগেরহাট আদালতে নিয়ে যায়।

থানা পুলিশ সূত্রে জানা গেছে, ২১ ফেব্রুয়ারি রাতে আওয়ামী লীগের দুই প্রার্থীর কর্মী-সমর্তকদের মধ্যে মারামারির ঘটনায় পারভেজকে ১ নম্বর আসামী করে শরণখোলা থানায় একটি মামলা দায়ের হয়। ওই মামলায় তাকে গ্রেপ্তার করা হয় বলে পুলিশ জানায়।

শনিবার রাতে একই মামলায় শাহজাহান হাওলাদার (৪৫) নামের এক আসামীকে গ্রেপ্তার করে জেলহাজতে পাঠানো হয়।

এদিকে, এঘটনার প্রতিবাদে সোমবার উপজেলা আওয়ামী লীগ বিক্ষোভ কর্মসূচীর ঘোষনা দিয়েছে। এ ঘটনার জের ধরে শরণখোলার রাজনৈতিক পরিস্থিতি উত্তপ্ত হয়ে উঠেছে। যে কোনো সময় আওয়ামী লীগের দ্ইু গ্রুপের মধ্যে রক্তক্ষয়ী সংঘর্ষের আশঙ্কা সৃষ্টি রয়েছে।

অপরদিকে পারভেজকে গ্রেপ্তারের খবরে প্রতিবাদে ফেটে পড়ে আওয়ামী লীগ, যুবলীগ, ছাত্রলীগসহ সহযোগী সংগঠনের নেতাকর্মীরা। ঘটনার পর পরই উপজেলা সদর রায়েন্দা বাজারে বিক্ষোভ মিছিল শেষে আওয়ামী লীগ অফিস চত্বরে প্রতিবাদ সমাবেশে অনুষ্ঠিত হয়েছে।

এতে বক্তব্য দেন উপজেলা আওয়ামী লীগের সহসভাপতি এম এ রশিদ আকন, আওয়ামী লীগ নেতা শাহজাহান বাদল জমাদ্দার, মহিউদ্দিন খান, হাফিজ হাওলাদার, যুবলীগ নেতা আজমল হোসেন মুক্তা, ছরোয়ার তালুকদার, ছাত্রলীগ নেতা সুমন আকন, হাসান মীর প্রমূখ।

এসময় বক্তারা পারভেজের বিরুদ্ধে দায়ের করা ষড়যন্ত্রমূলক মিথ্যা মামলা প্রত্যাহার করে অবিলম্বে তার মুক্তির দাবি জানিয়েছেন।

এব্যাপারে হাসানুজ্জামান পারভেজ বাগেরহাট ইনফো ডটকমকে অভিযোগ করে বলেন, জেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি এমপি ডা. মোজাম্মেল হোসেনের নির্দেশে আমার বিরুদ্ধে মামলা দেওয়া হয়েছে। আমার নির্বাচন ও প্রচারনা ব্যহত করতে এমপির নির্দেশেই আমাকে গ্রেপ্তার করা হয়েছে।

আওয়ামী লীগের সভাপতি বর্তমান উপজেলা চেয়ারম্যান ও আসন্ন নির্বাচনে তৃণমূলের ভোটে চেয়ারম্যান প্রার্থী মো. কামাল উদ্দিন আকন বলেন, এমপি ডা. মোজাম্মেল হোসেনের নির্দেশে আমার প্যানেলের ভাইস চেয়ারম্যান প্রার্থী পারভেজকে মিথ্যা মামলা দিয়ে গ্রেপ্তার করানো হয়েছে। আমার প্যানেলের জনপ্রিয়তায় ইর্ষান্বিত হয়ে এমপি সাহেব আমাদের বিরুদ্ধে একের পর এক ষড়যন্ত্র চালিয়ে যাচ্ছেন।

এব্যাপারে শরণখোলা থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মো. আব্দুস ছালেক বাগেরহাট ইনফো ডটকমকে জানান, নিরাপত্তা ও ঝামেলা এড়াতে পারভেজকে গ্রেপ্তারের পর সরাসরি আদালতে পাঠানো হয়েছে।

২৩ ফেব্রুয়ারি ২০১৪ :: মহিদুল ইসলাম, করেসপন্ডেন্ট
বাগেরহাট ইনফো ডটকম।
এসআই হকনিউজরুম/বিআই
ইনফো ডেস্কWriter: ইনফো ডেস্ক (1855 Posts)