হাসপাতালে রেখে পালিয়ে যাবার পর মৃত্যু

বাগেরহাটের মোরেলগঞ্জ উপজেলা (হাসপাতাল) স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ফারজানা ইয়াসমিন সীমা (২০) নামে এক কলেজ ছাত্রীর মৃত্যু হয়েছে।

সোমবার (৩১ আগস্ট) সকাল সাড়ে ৯টায় চিকিৎসাধীন অবস্থায় সীমা মারা যায়। এর প্রায় আধ ঘন্টা আগে দুই যুবক তাকে হাসপাতালের জরুরি বিভাগে পৌঁছে দেয়।

‘সীমা কিটনাশক জাতীয় কিছু পান করেছে’ এ কথা বলেই জরুরি বিভাগ থেকে সরে পড়ে ওই দুই যুবক। তবে হাসপাতাল কর্তৃপক্ষ ও স্থানীয়রা ওই দুই যুবকের পরিচয় নিশ্চিত করতে পারেন নি।

জারুরি বিভাগে কর্তব্যরত চিকিৎসক মুফতি কামাল হোসেন বলেন, মেয়েটির চিকিৎসা (পেট ওয়াস) চলছিলো। এরমধ্যে সড়ক দুর্ঘটনার কয়েকজন রোগী আসে। ওই ভিড়ে তাকে (সীমা) হাসপাতালে নিয়ে আসা দুই যুবক পালিয়ে যায়। তাদের পরিচয় পাওয়া যায়নি।

ফারজানা ইয়াসমিন সীমা পিরোজপুর জেলার জিয়ানগর উপজেলার ঢেপসাবুনিয়া গ্রামের মৃত ফিরোজ আহমেদের মেয়ে। ছোটবেলা থেকে সে তার মা সালমা বেগমকে নিয়ে পার্শবর্তি মোরেলগঞ্জে নানার বাড়িতে থেকে লেখাপড়া করছিল।

জিয়ানগর ডিগ্রী কলেজ থেকে এ বছর সে বিএ পাশ করেছে। সকালে মোড়েলগঞ্জ সদর বাজারে আসার কিছুক্ষন পরে হাসপাতালে তার মৃত্যু হয়। খবর শুনে তার মামা চরহোগলাবুনিয়া গ্রামের আলাউদ্দিন হাওলাদার হাসপাতালে আসেন।

মোরেলগঞ্জে থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মো. রফিকুল ইসলাম বাগেরহাট ইনফো ডটকমকে জানান, এ ঘটনায় একটি অপমৃত্যু মামলা হয়েছে। পুলিশ লাশ উদ্ধার করে ময়লা ময়না তদন্তের জন্য বাগেরহাট সদর হাসপাতালে পাঠিয়েছে।

এ ঘটনায় সীমাকে হাসপাতালে রেখে পালিয়ে যাওয়া অজ্ঞাত পরিচয়ের ওই দুই যুবককে খুঁজছে পুলিশ।

৩১ আগস্ট :: রাজীব আহ্সান, উপজেলা করেসপন্ডেন্ট,
বাগেরহাট ইনফো ডটকম।।
এস/আইএইচ/এনআরএ/বিআই
বাগেরহাট ইনফো নিউজWriter: বাগেরহাট ইনফো নিউজ (1301 Posts)