বাগেরহাটে আ.লীগ সহ-সভাপতিকে হাতুড়ি পেটা

স্পেশাল করেসপন্ডেন্ট | বাগেরহাট ইনফো ডটকম

বাগেরহাট জজ আদালতের আইনজীবী ও সদর উপজেলা আওয়ামী লীগের সহ-সভাপতি শেখ নূর মোহাম্মদকে (৫৬) হাতুড়ি দিয়ে বেধড়ক পিটিয়েছে একদল দুর্বৃত্ত।

শনিবার (১৪ অক্টোবর) সকালে শহরের সোনাতলা এলাকায় বাগেরহাট-খুলনা মহাসড়কের ওই আইনজীবীর উপর হামলা হয়। এতে তার ডান পা ভেঙে গেছে বলে জানিয়েছেন চিকিৎসকরা।

বাগেরহাট সদর হাসপাতালে প্রাথমিক চিকিৎসা দিয়ে দুপুরে তাকে ঢাকায় জাতীয় অর্থোপেডিক্স হাসপাতাল ও পুনর্বাসন কেন্দ্রে (পঙ্গু হাসপাতাল) পাঠানো হয়েছে।

জেলা আইনজীবী সমিতির (বার) সদস্য নুর মোহম্মদ বারের ভবন নির্মাণে দুর্নীতির অভিযোগে দায়ের করা একটি মামলার বাদীপক্ষের আইনজীবী। এ কারণে তার উপর হামলা করা হয় বলে অভিযোগ ওই আইনজীবীর।

ঘটনার পর জেলা ও উপজেলা আওয়ামী লীগ এবং বারের নেতৃবৃন্দ তাকে দেখতে হাসপাতালে যান। এসময় তারা এ ঘটনায় নিন্দা জানিয়ে দ্রুত হামলাকারীদের গ্রেপ্তারের দাবি জানান।

বাগেরহাট হাসপাতাল ছাড়ার আগে নূর মোহাম্মদ সাংবাদিকদের বলেন, ‘সকাল ৯টার দিকে সোনাতলার বাড়ি থেকে বের হয়ে পাশের একটি রেস্তোরাঁয় নাস্তা খেতে রওনা হই। এ সময় ৪/৫টি মোটরসাইকেলযোগে এসে ৮/৯ যুবক আমার পথরোধ করে লোহার হাতুড়ি দিয়ে এলোপাথাড়ি পেটাতে শুরু করে।’

 ‘এক পর্যায়ে হাতুড়ির আঘাতে আমি রাস্তার উপর পড়ে গেলে তারা আমার সারা শরীরে পিটিয়ে রক্তাক্ত জখম করে ফেলে রেখে চলে যায়। পরে স্থানীয়রা আমাকে হাসপাতালে নিয়ে আসে।’

তিনি অভিযোগ করে বলেন, প্রধানমন্ত্রীর দেওয়া অনুদানের প্রায় সাড়ে চার কোটি টাকা ব্যয়ে জেলা আইনজীবী সমিতির বহুতল ভবন নির্মাণ কাজ শুরু হয়েছে। ভবনটি নিয়ম অনুযায়ী না করে লক্ষ লক্ষ টাকা আত্মসত করা হচ্ছে। নির্মাণে বর্তমান কমিটি দুর্নীতির আশ্রয় নেওয়ায় সম্প্রতি সমিতির দুই সদস্য (মোহাম্মদ আলী জিন্না ও খান মোহাম্মদ আলী বাদশা) আদালতে মামলা করেছেন।

‘আমি ওই মামলাটি পরিচালনা করছি। এতে বর্তমান কমিটি আমার উপর ক্ষুব্ধ। তাই বারের সভাপতি এ্যাড. আজাদ ফিরোজ টিপু ভাড়াটে লোকজন দিয়ে পরিকল্পিতভাবে আমার উপর হামলা করিয়েছে।’

এরআগে বিভিন্ন সময়ে তাকে ওই মামলা পরিচালনা না করতে এবং এবিষয়ে কথা না বলার জন্য হুমকি দেওয়া হয় বলেও অভিযোগ করেন তিনি।

তবে অ্যাডভোকেট নূর মোহাম্মদের অভিযোগ অস্বীকার করেছেন বাগেরহাট জেলা আইনজীবী সমিতির সভাপতি ও জেলা আওয়ামী লীগের সাংগঠনিক সম্পাদক এ কে আজাদ ফিরোজ টিপু।

বাগেরহাট ইনফো ডটকমকে তিনি বলেন, জেলা আইনজীবী সমিতির সদস্যদের সিদ্ধান্তে ভবন নির্মাণ কাজ শুরু হয়েছে। নিয়ম মেনেই তা করা হচ্ছে। এই ঘটনায় সমিতির দুই সদস্য অনিয়মের অভিযোগ তুলে আদালতে মামলা করেছেন, যা বর্তমানে বিচারাধীন।

 তিনি বলেন, নূর মোহম্মদের নিজ এলাকায় তার ব্যক্তিগত বেশকিছু মামলা ও বিরোধ রয়েছে। সেই শত্রুতা জের ধরে তার উপর এই হামলা হয়ে থাকতে পারে।

‘হামলার খবর পেয়ে আমরা তাকে হাসপাতালে দেখতে যাই। আমরা হামলাকারীদের অবিলম্বে গ্রেপ্তারের দাবি জানাচ্ছি।’

আগামী সোমবার তার উপর হামলার প্রতিবাদে আইনজীবী সমিতি সভা আহ্বান করেছে। সেই সভা থেকে পরবর্তী করণীয় ঠিক করা হবে বলে তিনি জানান।

বাগেরহাট সদর উপজেলা আওয়ামী লীগ সভাপতি শেখ আখতারুজ্জামান বাচ্চু বলেন, নূর মোহাম্মদ সদর উপজেলা আওয়ামী লীগের সহ-সভাপতি এবং ষাটগুম্বজ ইউনিয়নের সাবেক সভাপতি। তার উপর হামলাকারী যেই হোক তাদের অবিলম্বে গ্রেপ্তার করতে হবে।

তিনি বলেন, কারা হামলা চালিয়েছে তা এখনও আমারা নিশ্চিত হতে পারিনি। তবে বিভিন্ন ভাবে একটি খবর আসছে আইনজীবী সমিতির একটি সংকটের থেকে এই ঘটনা ঘটতে থাকতে পারেন।

বাগেরহাট সদর হাসপাতালের তত্ত্বাবধায়ক ও সিভিল সার্জন অরুণ চন্দ্র মন্ডল বলেন, আইনজীবী নূর মোহাম্মদের শরীরে বিভিন্ন স্থানে আঘাতের চি‎হ্ন রয়েছে। তার ডান পা ভেঙ্গে গেছে।

 “দুপুরে তাকে ঢাকার পঙ্গু হাসপাতালে পাঠানো হয়েছে।” 

বাগেরহাট মডেল থানার ওসি মাহাতাব উদ্দিন বলেন, কী কারণে কারা হামলা চালিয়েছে তা শনাক্ত করতে পুলিশ তদন্ত শুরু করেছে।

তবে এ ঘটনায় এখন পর্যন্ত কোন মামলা হয়নি। অভিযোগ পেলে আইন অনুযায়ী ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

এজি//এসআই/বিআই/১৪ অক্টোবর, ২০১৭

বাগেরহাট ইনফো নিউজWriter: বাগেরহাট ইনফো নিউজ (1300 Posts)