নিখোঁজ স্কুলছাত্রীর মরদেহ মিলল নদীতে

স্টাফ করেসপন্ডেন্ট | বাগেরহাট ইনফো ডটকম

বাগেরহাটের মোরেলগঞ্জ উপজেলার পানগুছি নদী থেকে এক স্কুলছাত্রীর মরদেহ উদ্ধার করেছে পুলিশ। শিশুটি গেল পাঁচদিন ধরে নিখোঁজ ছিল।

রোববার (১১ ফেব্রুয়ারি) বেলা ১১টার দিকে উপজেলার সন্ন্যাসী লঞ্চঘাট সংলগ্ন নদী তীর থেকে মরদেহটি উদ্ধার করা হয়।

শিশুটির নাম বেহেস্তি (১১)। সে পার্শ্ববর্তী পিরোজপুর জেলা ইন্দুরকানী উপজেলার কালাইয়া সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের ৫ম শ্রেণির ছাত্রী ছিল। তারা বাবা কালাইয়া গ্রামের নজরুল ইসলাম।

পরিবারের বরাত দিয়ে মোরেলগঞ্জ থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) রাশেদুল আলম বলেন, গত ৬ ফেব্রুয়ারি সকালে বাড়ি থেকে বেরিয়ে শিশুটি নিখোঁজ হয়। এরপর অনেক খোঁজাখুজি করেও পরিবারের লোকজন তার কোন সন্ধান পায়নি। সকালে স্থানীয়দের মাধ্যমে খবর পেয়ে পুলিশ নদী থেকে একটি মরদেহ উদ্ধার করে।

পরে পরিবারের লোকজন মরদেহ দেখে শিশুটিকে শনাক্ত করেছে। উদ্ধারের সময় তার শরীরে লাল রঙের একটি সোয়েটার ও পায়ে মোজা ছিল।

ওসি জানান, ময়না তদন্তের জন্য পুলিশ মরদেহটি বাগেরহাট সদর হাসপাতালে মর্গে পাঠিয়েছে। ময়না তদন্ত প্রতিবেদন পাওয়ার পর জানা যাবে শিশুটি কিভাবে মারা গেছে।

এরআগে, গত ৫ ফেব্রুয়ারি জেলার শরণখোলা উপজেলার বলেশ্বর নদ থেকে অজ্ঞাত এক যুবকের মরদেহ উদ্ধার করে থানা পুলিশ। একদিন পর তার পরিচয় মেলে। মাছুম হাওলাদার নামে ওই যুবক পিরোজপুর জেলার ইন্দুরকানী উপজেলার টগরা গ্রামের মৃত নূরুল ইসলাম হাওলাদরের ছেলে।

একমাস আগে ইন্দুরকানীর একটি ইটভাটায় শ্রমিকের কাজে যোগ দেওয়ার ১৫ দিন পর থেকে তিনি নিখোঁজ ছিলেন। ওই ঘটনায় গত ২১ জানুয়ারি ইন্দুরকানী থানায় একটি সাধারণ ডাইরি করেছিল তাঁর পরিবার।

এইচ//এসআই/বিআই/১১ ফেব্রুয়ারি, ২০১৮/আপডেট

বাগেরহাট ইনফো নিউজWriter: বাগেরহাট ইনফো নিউজ (1499 Posts)