আ.লীগের দু’গ্রুপের সংঘর্ষে গুলিবিদ্ধসহ আহত ২০

বাগেরহাটের চিতলমারীতে আওয়ামী লীগের দু’গ্রুপের সংঘর্ষে গুলিবদ্ধসহ কমপক্ষে ২০ জন আহত হয়েছেন। সংঘর্ষ চলাকালে বসতবাড়ি, দোকানসহ অন্তত ১২টি স্থাপনায় ভাঙচুর ও লুটপাটের খবর পওয়া গেছে।

বুধবার (২১ জানুয়ারি) সকালে উপজেলার কলাতলা ইউনিয়নের রহমতপুর গ্রামে আধিপত্য বিস্তারকে কেন্দ্র করে এমদাদুল হক শেখ ও ডা. শাহজাহানের সমর্থকদের মধ্যে এ সংঘর্ষের ঘটনা ঘটে।

এমদাদুল হক শেখ উপজেলার কলাতলা ইউনিয়নের ৩ নং ওয়ার্ড আওয়ামী লীগের সভাপতি এবং ডা. শাহজাহান একই ওয়ার্ডের আওয়ামীলীগের সাবেক সভাপতি ও ইউপি সদস্য।

স্থানীয়রা জানিয়েছেন, দীর্ঘ্যদিন ধরে এলাকার আধিপত্য নিয়ে এই দুই গ্রুপের সমর্থকদের মধ্যে বিরোধ চলে আসছে। এর জের ধরে বুধবার সকালে দেশি অস্ত্রশস্ত্র নিয়ে দুই পক্ষের লোকজন সংঘর্ষে জড়িয়ে পড়ে।

সংঘর্ষ চলাকালে একটি মুদি দোকান এবং ১১টি বসতবাড়ি হামলা-ভাঙচুর ও লুটপাটের ঘটনা ঘটেছে। এক পর্যায়ে উভয় পক্ষের মধ্যে গোলাগুলি শুরু হলে অন্তত্য ৯ জনের গুলিবিদ্ধ হয়। সংঘর্ষে নারী ও শিশুসহ ২০ থেকে ২৫ জন আহত হয়েছে বলে জানা গেছে।

আহতদের মধ্যে উভয় পক্ষের ১৬ জনের নাম পাওয়া গেছে। এরা হলেন – এমদাদুল হক, তার পক্ষের নাজমুল, জাকার আলী, বাদশা মাস্টার, ইউনুস মীর, আরিফ শেখ, হায়াত আলী, হাসিব শেখ, বাবুল শেখ, জাকার বিশ্বাস, দুলাল শেখ, মিলি বেগম ও সাজ্জাদ এবং ডা. শাহজাহানের পক্ষের ফিরোজ শেখ, সাজ্জাদ হোসেন ও রফিকুল ইসলাম।

bagerhat-map2তাদেরকে উদ্ধার করে চিতলমারী এবং গোপালগঞ্জের টুঙ্গিপাড়া উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করা হয়েছে।

চিতলমারী থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) দিলীপ কুমার সরকার বাগেরহাট ইনফো ডটকমকে জানান, এলাকায় আধিপত্য বিস্তারকে কেন্দ্র করে এমদাদুল হক শেখ ও ডা. শাহজাহানের মধ্যে সমর্থকদের মধ্যে এ সংঘর্ষের ঘটনা ঘটে। এতে উভয় পক্ষের বেশ কয়েক জন আহত হন।

বুধবার সকালে ওই সংঘর্ষ চলাকালে উভয় গ্রুপই দেশিয় অস্ত্রশস্ত্র নিয়ে প্রতিপক্ষের উপর হামলা চালায়। এসময় পাল্টা-পাল্টি হামলা চালিয়ে অন্তত ১২টি বসতবাড়ি ভাঙচুর করা হয়। খবর পেয়ে পুলিশ ঘটনাস্থলে গিয়ে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনে।

তবে গোলাগুলি বা কেউ গুলিবিদ্ধ হবার ব্যাপারে ওসি কিছুই জানতে পারেন নি।

তিনি আরো জানান, ফের সংঘর্ষ এড়াতে ঘটনাস্থালে পুলিশ মোতায়ন করা হয়েছে। বর্তমানে পরিস্থিতি শান্ত রয়েছে।

এদিকে হামলা ও সংঘর্ষের বিষয়ে জানতে এমদাদুল হক শেখ এবং ডা. শাহজাহানের সঙ্গে একাধিক বার চেষ্টা করেও যোগাযোগ করা সম্ভব হয় নি। জানা গেছে, বিকালে উভয় পক্ষই বিষয়টি মিমাংসার জন্য থানায় যাবেন।

২১ জানুয়ারি ২০১৫ :: উপজেলা করেসপন্ডেন্ট,
বাগেরহাট ইনফো ডটকম।।
এস/আই হক-এনআরএডিটর/বিআই
ইনফো ডেস্কWriter: ইনফো ডেস্ক (1855 Posts)