বাগেরহাটে গ্রেপ্তার ৩; স্বাভাবিক মংলা বন্দরের কার্যক্রম

বিএনপি নেতৃত্বাধীন ২০ দলীয় জোটের ডাকা দেশব্যাপী অবরোধেও মংলা সমুদ্র বন্দরের কার্যক্রম স্বাভাবিক কয়েছে বলে জানিয়েছে বন্দর কর্তৃপক্ষ।

Mongla-Portটানা অবরোধের মাঝেই খুলনা বিভাগে ১০ জেলায় শুরু হয়েছে হরতাল। আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর অভিযানে নেতাকর্মীদের ‘হত্যা’ ও নির্যাতনের অভিযোগ তুলে বুধবার সকাল থেকে ঢাকা ও খুলনা বিভাগে ৪৮ ঘণ্টার হরতাল ডেকে বিএনপি।

তবে অবরোধের মতো হরতালেও দেশের আমদানী-রপ্তারীর দ্বিতীয় লাইফ লাইন মংলা বন্দরে অবস্থানরত জাহাজে পণ্য ওঠানামার কাজ স্বাভাবিকভাবে চলছে বলে কর্তৃপক্ষ জানায়।

মংলা বন্দর কর্তৃপক্ষের হারবার মাস্টার মো. হাসান বাগেরহাট ইনফো ডটকমকে জানান, চলতি মাসের ১৯ তারিখে এ যাবতকালে মংলা বন্দরে একদিনে সর্বোচ্চ সংখ্যক জাহাজ এসেছে। এ দিনে বিভিন্ন পণ্যবাহী ৬টি জাহান বন্দরে নোঙ্গর করেছে।

বর্তমানে বন্দরে ইউরিয়া সার, ক্লিংকার, এলপিজি গ্যাস, ম্যাশিনারিজসহ মোট ৮টি জাহাজ অবস্থান করছে। স্বাভাবিকভাবে চলছে পণ্য ওঠানামার কাজ। মূলত মংলা বন্দর দিয়ে আমদনিকৃত পণ্যের বেশির ভাগই নৌপথে পরিবহন হওয়াতে বন্দরে অবরোধ হরতালের তেমন প্রভাব পড়েনি বলে জানান তিনি।

তবে, মংলা বন্দর থেকে দেশের বিভিন্ন প্রান্তে সড়ক পথে পণ্য পরিবহন নিরাপত্তার কারণে বাধাগ্রস্ত হওয়ার কথা জানিয়েছেন, বন্দর ব্যবহারবারীরা। বিশেষ করে পাট ও হিমায়িত মাছ রপ্তানি করতে না পারায় বিপাকে পড়েছে রপ্তানীকারকরা।

Mongla-Ship-File-pic-(11-06-14)এদিকে, অবরোধের মধ্যে বুধবার থেকে খুলনা বিভাগে ডাকা হরতালের খুব একটা প্রভাব পড়েনি বাগেরহাটে। সকাল থেকে জেলা সদর ও উপজেলা শহরগুলোতে স্বাভাবিক ভাবে চলাচল করছে রিকশা, ভ্যান ও ব্যাটারি চালিত অটোরিকশা।

স্থানীয়রা জানান, খোলা রয়েছে ব্যাংক-বীমা, অফিস-আদলত ও শিক্ষা প্রতিষ্ঠান। কম হলেও চলাচল করেছে অভ্যন্তরীণ রুটের যান চলাচল। তবে, বাগেরহাট থেকে ছেড়ে যায়নি দূরপাল্লার কোনো পরিবহন।

বাগেরহাট আন্তঃজেলা বাস-মিনিবাস মালিক সমিতির সাধারণ সম্পাদক খান মনির হোসেন বাগেরহাট ইনফো ডটকমকে জানান, নিরাপত্তার কারণে বাগেরহাট জেলা থেকে দূরপাল্লার পরিবহন ছাড়েনি। তবে, কম হলেও বাগেরহাট-খুলনাসহ জেলার অভ্যন্তরীণ রুটে যান চলাচল স্বাভাবিক রয়েছে।

অবরোধ ও হরতালে বৃহস্পতিবার বেলা সোয়া ১২টা পর্যন্ত জেলার কোথাও কোনো অপ্রীকিকর ঘটনার খবর পাওয়া যায়নি।

বাগেরহাটের অতিরিক্ত পুলিশ সুপার মো. হায়াতুল ইসলাম খান বাগেরহাট ইনফো ডটকমকে জানান, অবরোধ এবং হরতালের নাশকতা এড়াতে পুলিশ ও আইনশৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনী সতর্ক রয়েছে। জেলা ও উপজেলাগুলোতে বাড়ানো হয়েছে পুলিশি টহল।

নাশকতার পরিকল্পনার অভিযোগে বুধবার রাতে জেলা সদর, রামপাল ও ফকিরহাট থানা এলাকায় অভিযান চালিয়ে পুলিশ বিএনপি ও জামায়াতের ৩ কর্মীকে গ্রেপ্তার করেছে। বৃহস্পতিবার সারা দিনে জেলার কোথাও কোনো অপ্রীতিকর ঘটনা ঘটেনি। স্বাভাবিক রয়েছে জনজীবন।

২২ জানুয়ারি ২০১৫ :: স্টাফ করেসপন্ডেন্ট,
বাগেরহাট ইনফো ডটকম।।
এস/আই হক-এনআরএডিটর/বিআই
ইনফো ডেস্কWriter: ইনফো ডেস্ক (1855 Posts)